১২ তলা থেকে ছিটকে পড়া ২ বছরের শিশুর প্রাণ বাঁচালেন ডেলিভারি বয়, প্রশংসার ঝড় নেটদুনিয়ায়


সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও খুবই ভাইরাল হয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে, এক ১২ তলা একটি ফ্ল্যাটের ব্যালকনি থেকে নীচে পড়ে যাচ্ছে ২ বছরের একটি শিশু। আর ঠিক সেই সময়ই একটি ট্রাকে করে ওই এলাকায় মাল ডেলিভারি করতে এসেছিলেন এক ডেলিভারি বয় । আর ঠিক তখনই, হঠাৎই তিনি উপরের দিকে তাকিয়ে দেখেন একটি শিশু ব্যালকনি থেকে ঝুলছে। এই অবস্থা দেখে, তিনি কোনও মতে তাড়াতাড়ি গাড়ি থেকে নেমে আসেন।

আর ঠিক সে সময়ই হাত ফসকে যায় শিশুটির এবং ঝড়ের গতিতে নীচে পড়তে শুরু করে শিশুটি। তখনই তাঁকে ধরে ফেলেন ডেলিভারি বয়টি। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বলা যায়, শিশুটির ভাগ্য খুবই ভালো ছিল তাই সে এই যাত্রায়, এইভাবে বেঁচে গেলো। যদি ঠিক সময় ডেলিভারি বয়টি ওখানে উপস্থিত না হত তাহলে হয়তো আজ শিশুটি আর বেঁচে থাকত না। শোনা যায় শিশুটি সামান্য আঘাত পেয়েছে কিন্তু বড় কোনো ক্ষতি হয়নি তার। আসলে কোথায় আছে না, যদি ভাগ্য ভালো থাকে তাহলে তাকে স্বয়ং ভগবান এসে তাঁকে রক্ষা করেন। আর আমরা সকলেই জানি যে, শিশুদের মধ্যে ভগবান বিরাজ করেন। তাই বলাই যায় এই যাত্রায় শিশুটি এক নতুন জীবন পেলো।

প্রসঙ্গত, বছর একত্রিশের ডেলিভারি বয়টি জানান যে, তিনি যখন ওই এলাকায় ডেলিভারির জন্য যান, তখন তিনি গাড়ির মধ্যে থেকেই একটি শিশুর কান্নার আওয়াজ শুনতে পাচ্ছিলেন। কিন্তু আসে পাশে তাকিয়ে বা খুঁজে তিনি কোনও শিশুকে দেখতে পাচ্ছিলেন না। তখন তিনি গাড়ির থেকে বেরিয়ে আসেন এবং উপরের দিকে তাকিয়ে দেখেন ১২ তলা একটি ফ্ল্যাটের ব্যালকনি থেকে ঝুলছে ২ বছরের একটি ছোট্ শিশু। এই দেখে তিনি রীতিমত চমকে ওঠেন এবং তখনই তিনি মন স্থির করেন যে ভাবেই হোক তিনি শিশুটিকে বাচাবেন। আর সৌভাগ্যক্রমে এবং ভগবান এর কৃপায় শিশুটি তাঁরই হাতে এসে পড়ে এবং সে প্রাণে বেঁচে যায়।

খবর সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে শিশুটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং সে খুবই ভয় পেয়ে গিয়েছে। চিকিৎসকেরা বলছেন তার ভয় কাটিয়ে উঠতে বেশ কিছুটা সময় লাগবে, এবং তারা শিশুটির বিশেষ খেয়াল রাখছেন এবং তার ভয় কাটিয়ে, তাঁকে যত শীঘ্রই সম্ভব সুস্থ করে তোলার চেষ্টা করছেন তারা। আর ক কথায় বলতে গেলে এই ঘটনার পর ওই ডেলিভারি বয় সকলের কাছে বাস্তবের হিরো হয়ে উঠেছেন। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও টি দেখার পর নেটিজনদের মধ্যে থেকে উঠে আসছে হাজার প্রশ্ন। প্রায় সকলেই অবাক এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে। সকলের মনে একটাই প্রশ্ন উঠে আসছে যে, শিশুটির পিতা মাতা কি করে এত কেয়ারলেস হতে পারেন! যাই হোক সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও টি আপলোড হওয়ার পর তা নেট দুনিয়ায় তুমুল ভাইরাল হয়েছে।

আরও পড়ুন

ভাইরাল ভিডিও

⚡ Trending News

আরও পড়ুন