ভাইরাল ভিডিও

পরিস্থিতির চাপে পড়াশোনা বন্ধ করে Zomato ডেলিভারি বয়ের কাজ নিল ৭ বছরের ছেলে

শৈশব মানুষের জীবনে কাটানো সেরা একটি সময়। এটা এমন এক অধ্যায় যখন একদিকে মায়ের বকুনিতে যেমন মন খারাপ হয়ে যায় ঠিক তেমনই বকার পরে মায়ের আদরটাও খুব স্পেশ্যাল হয়ে ওঠে। ছোটবেলার এই সময়টা যখন স্কুল গিয়ে, খেলাধুলা করে কাটানোর কথা তখনই অসহায় বাবার দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিল মাত্র ৭ বছর বয়সি এক সন্তান। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এমনই এক ভিডিও যেখানে ওই শিশুকে বলতে শোনা গেছে তাঁর জীবনের চরম কষ্টের কাহিনি। পরিস্থিতির চাপে পড়াশোনা বন্ধ করে Zomato ডেলিভারি বয়ের কাজ নিল ৭ বছরের ছেলে

দরিদ্রতা বোধ এরই নাম, ছোটবেলার রঙিন জীবন ছেড়ে Zomato তে ডেলিভারি বয়ের জীবন বেছে নিয়েছে সে। রাহুল মিত্তল নামক এক ট্যুইটার ব্যবহারকারী একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন, যেখানে ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন ‘এই ৭ বছরের শিশুটি তাঁর বাবার কাজ করছে কারণ তার বাবা একটি দুর্ঘটনার দরুন এই কাজ করতে পারছেন না।’ তবে পরিস্থির চাপে পড়ে পড়াশোনা বন্ধ করে নি সে। সকালবেলা স্কুলে গিয়ে, সন্ধ্যা ৬টার পর ডেলিভারি বয়ের কাজ করে সে। বাচ্চাটির এই অসাধারণ কৃতিত্বকেও সাহস এবং অনুপ্রেরণা জোগানোর জানিয়েছেন ওই ট্যুইটার ব্যবহারকারী।

ভিডিওটিতে Zomato সংস্থাকেও ট্যাগ করেছিলেন রাহুল মিত্তল নামক ওই ট্যুইটার ব্যবহারকারী। যার ফলস্বরুপ ভিডিওটি দেখা মাত্রই ‘Zomato Care’- এর তরফে মিলেছে জবাবও। রাহুল মিত্তলের কাছে ওই শিশুটির বাবার ফোন নম্বর চেয়েছে Zomato। কথায় বলে ‘যার শেষ ভালো তার সব ভাল’। এত অসহায়তাএবং কষ্টের মাঝেই Zomato সংস্থার ওই জবাব যেন সত্যিই এক বড় আশার আলো।

Related Articles