শচীনের মেয়ের প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন এই জনপ্রিয় ভারতীয় ক্রিকেটার, শীঘ্রই হতে পারে বিয়ে, দেখুন ছবি

Anjali Tendulkar

শচীন টেন্ডুলকার (Sachin Tendulkar) ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসে এক উজ্জ্বল জ্যোতিষ্ক। ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার নিজের অসামান্য পারফরম্যান্স দিয়ে ভরিয়ে রেখেছেন ভারতের ক্রিকেটের ইতিহাস। বিশ্বকাপ জেতা থেকে শুরু করে ভারতীয় ক্রিকেটের রেকর্ড গড়া সব কিছুতেই তিনি এগিয়ে। এক কথায় বলতে গেলে তাঁর জীবন মানেই ২২ গজ। প্রায় ২৪বছরের তাঁর ক্রিকেটার জীবন। প্রতিটি ভারতীয় তাঁকে এক নামে চেনে। শুধু ভারতবর্ষে নয় সারা বিশ্বের অন্যতম একজন ক্রিকেটার হলেন তিনি। এহেন এক ব্যক্তিত্বময় ক্রিকেটারের ব্যক্তিগত জীবন খুবই বর্ণময়। জীবনসঙ্গী অঞ্জলি তেন্ডুলকর (Anjali Tendulkar ) এর সঙ্গে ২৭ বছরের বিবাহিত জীবন। তাঁর ব্যক্তিগত জীবনে আজ পর্যন্ত মিডিয়াতে প্রকাশ পায়নি। সন্তান এবং স্ত্রীকে নিয়ে সুখের সংসার এই ক্রিকেটারের।

অঞ্জলি এবং শচীন তেন্ডুলকরের একজন যুবতী কন্যাও রয়েছেন। শচীন টেন্ডুলকারের ২৭ বছরের এই যুবতী কন্যার নাম সারা তেন্ডুলকর ( Sara Tendulkar )। তবে এরকম একজন বিখ্যাত বাবার মেয়ে কিন্তু সাধারণ হয়ে ঘরের কোণে থাকেনি। বর্তমানে সারা কে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় হইচই পড়ে গেছে। শচীন কন্যা সারার ফ্যান ফলোয়ার্স খুব কম একটা নয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় তার ফ্যান ফলোয়ার্স দেখলে চোখ কপালে উঠবে অনেকেরই। সম্প্রতি এই সারাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল চর্চা শুরু হয়েছে।
Anjali Tendulkar

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে শচীন কন্যা সারা নাকি এক ক্রিকেটারের প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন। আর শচীন কন্যার এই প্রেম কাহিনী আলোড়ন ফেলে দিয়েছে নেট দুনিয়ায়। যদিও সারার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে এখনও পর্যন্ত মুখ খোলেনি পিতা শচীন তেন্ডুলকর। কিন্তু তা হলেও কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে ক্রিকেটার যুবকের সাথে অনেক জায়গাতেই নাকি দেখা গেছে শচীন কন্যা সারাকে। শোনা যাচ্ছে যে যুবকের সঙ্গে সারাকে প্রায়ই দেখা যাচ্ছে তাঁর নাম হলো শুভমান গিল ( Subhman Gil )। বেশ কিছুদিন ধরেই তাঁরা একে অপরের সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন। এমনিতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভীষণভাবে অ্যাক্টিভ শচীন কন্যা সারা। এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি পোস্ট করেন শচীন কন্যা।আর তা রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গেছে। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এই জুটি সকলের পছন্দের শিরোনামে উঠে এসেছে। যদিও সারার ব্যক্তিগত জীবনে সিদ্ধান্ত গ্রহণ সারার উপর ছেড়ে দিয়েছেন শচীন তেন্ডুলকর। সেই বিষয়ে তিনি হস্তক্ষেপ করতে চান না।