‘আমি চুমু খাব, আটকাতে পারবেন?’ মাস্ক না পরে পুলিশের সাথে বচসায় জড়ালেন দম্পতি, ভাইরাল ভিডিও


মানুষ করোনার আতঙ্ক কাটিয়ে ওঠার আগেই আবারও গোটা দেশ জুড়ে ক্রমাগত বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমাগত বেড়ে চলেছে। গোটা দেশ থেকে শুরু করে বলিউডের তারকারাও এখন এর কবলে পড়ছেন। বর্তমানে করোনা সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে বলিউডের বিভিন্ন অভিনেতা অভিনেত্রীদের ওপর নিজের থাবা বসাতে ভোলেনি। গত বছর অর্থাৎ ২০২০ সালে চিনের ইউহান শহর থেকে আসা করোনা ভাইরাস নামক এক মারাত্মক ভাইরাস আমাদের দেশে প্রবেশ করে সবকিছুকে কাবু করে ফেলেছিল। এই ভাইরাসের তান্ডবে প্রতিনিয়ত প্রায় হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়ে চলেছেন। এখানেই শেষ নয়, আগের বছর দেশ জুড়ে চলেছে লকডাউন। মাস্ক এবং স্যানিটাইজার, কোয়ারেন্টাইন ও ওয়ার্ক ফর্ম হোমের মত শব্দগুলি করোনার কারণে সকলের জীবনের সঙ্গে জুড়েছে। গোটা বিশ্বের মানুষকে এক অস্বস্তির মুখে ফেলেছে করোনা নামের এই অদ্ভূত রোগটি।

চিনের এই ভাইরাস মানুষের যে, জীবন এত বড় প্রভাব ফেলবে তা কেউ কখনও ভাবতে পারেনি। বর্তমানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে, তাই এই পরিস্থিতিতে সচেতনতা বাড়াতে এবং পরিস্থিতি কিছুটা সামাল দিতে রাজধানী অর্থাৎ দিল্লীতে কিছু সপ্তাহের জন্য পুনরায় লকডাউন করা হয়েছে। কিন্তু জনসাধারণের উদ্দেশে করা এই লকডাউনের তোয়াক্কা না করেই পুলিশকে উল্টে নিয়ম শেখানোর চেষ্টা করলেন এক দম্পতির বিরুদ্ধে। যদিও তাদের বিরুদ্ধে দিল্লি পুলিশ এফআইআর দায়ের করেছে। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, এই দম্পতি নিজেরা মাস্ক না পড়ে কোনরূপ করোনা সচেতনতা অবলম্বন না করেই, দিল্লির রাস্তায় গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে পড়েছেন নিজেদের গন্তব্যের উদ্দেশে।

এমনকি পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এই দম্পতি কাছে কোনো প্রকার ‘কার্ফু পাস’ ছিল না। আর ঠিক এই পরিস্থিতিতে পুলিশি তরফ থেকে ওই দম্পতির গাড়ি আটকানো হলে, পুলিশের সঙ্গে ওই দম্পতির ক্রমাগত কথা কাটাকাটি চলতে থাকে। ঠিক তখনই গাড়ির ভিতরে বসে থাকা মহিলা বলে ওঠেন, “আমি আমার স্বামীকে চুমু খাব, আপনি আটকাতে পারবেন? জানেন আমার বাবাও একজন এসআই।” এর পাশাপাশি গাড়ির ভিতরে থাকা পুরুষ ব্যক্তিটি ও প্রশ্ন করেন যে, “আমি আমার স্ত্রীর সঙ্গে আছি, আপনি গাড়ি কেন আটকালেন?” এরপর পুলিশ আধিকারিক তাদের হাইকোর্টের পর্যবেক্ষণের নির্দেশ জানিয়ে বলেন যে, গাড়ির ভিতরে যদি কেউ যদি একা থাকেন তাহলেও তাঁকে মাস্ক পরতে হবে এটাই নির্দেশ রয়েছে আইনী তরফ থেকে। কিন্তু ওই দম্পতি ক্রমশ পুলিসের সঙ্গে অশান্তি ঝামেলা বাড়িয়ে চলে ছিলেন কোনো কথাই শুনতে রাজি ছিলেন না তাঁরা।

তাই পুলিশ শেষ পর্যন্ত তাদের স্থানীয় থানায় নিয়ে যায় এবং পুলিশের তরফ থেকে এই দম্পতির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। এরপর পুলিশ গাড়ির মধ্যে থাকা পঙ্কজ দত্ত নামের ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছেন এবং গাড়ির ভিতরে তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন আভা গুপ্তা নামে এক মহিলাও যাকে ওই ব্যক্তি নিজের স্ত্রী বলে পরিচয় দিচ্ছিলেন, তাঁকে ও খুব শীঘ্রই পুলিশি হেফাজতে রাখা হবে জানান পুলিশ আধিকারিক। বর্তমানে রাজধানীতে করোনার থাবা মারাত্নক পরিমাণে বেড়ে চলেছে। খবর সূত্রে জানা গিয়েছে, দিল্লিতে গতকাল অর্থাৎ রবিবার একদিনে ২৫ হাজার জন মানুষ কোভিড পজিটিভ বেড়িয়েছেন। তাই মুখ্যমন্ত্রী করোনা আক্রান্তের হাত থেকে কিছুটা সচেতন থাকতে সপ্তাহের জন্য লকডাউন জারি করেছেন। আইনী তরফ থেকে দেওয়া নির্দেশ ভঙ্গের জন্য শনিবার এবং রবিবার এই দুই দিন পুলিশ ৫৬৯টি এফআইআর ও ২,৩৬৯টি চালান কেটেছে বলে জানা গিয়েছে। এর পাশাপাশি ৩২৩ জনকে করোনার নিয়ম ও নির্দেশ না মানার কারনবশত পুলিশ গ্রেফতার করেছেন। সম্প্রতি এই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড হওয়ার পর তা নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুন

ভাইরাল ভিডিও

⚡ Trending News

আরও পড়ুন