অফবিট

সাপ চাষ-ই এই গ্রামের প্রধান পেশা! জানলে অবাক হবেন

সাপকে দেখলে কে না ভয় পায়! সাপ থাকলে সেই জায়গা থেকে শত হস্ত দূরে থাকে মানুষ আর সেখানে সাপের চাষ করা তো দূরের কথা। কিন্তু একটি গ্রামের উপার্জনের অন্যতম উৎস সাপ চাষ। শুনে অবাক লাগছে তো ? কিন্তু অবাক লাগলে এরকমটাই সত্যি।

ধান,গম কিংবা সবজি চাষের কথা সকলেই শুনেছি; কিন্তু তা বলে সাপের চাষ করে উপার্জন করা যায়, এরকমটা কেউ হয়তো জানেনা। চীনের জিসিকিয়াও নামক গ্রামে এরকমটাই হয়। আগে এখানকার লোকেরা বিভিন্ন চাষাবাদের কাজে নিযুক্ত ছিল; এরপর ইয়াং হোঙচাঙ নামের এক ব্যক্তি, সর্বপ্রথম সাপের চাষ শুরু করে আর সেটি লাভেরও মুখ দেখে। এর ফলে অন্যান্যরাও যা কিছু করত সেগুলি ছেড়ে, এই কাজেই যোগ দেয়। বর্তমানে তাদের বছরে আয় হয়, ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ১০ লক্ষ টাকা।

সাপের চাষ করে বিপুল পরিমাণে আয়ের অন্যতম কারণ হলো, চীনে সাপ খাওয়ার চল আছে। বেশিরভাগ মানুষই সাপের মাংস খেতে পছন্দ করে। এটি মোটামুটি মাছ ও চিকেনের মধ্যবর্তী পর্যায়ের স্বাদের এক রকমের মাংস হয়, যেটি চিলি চিকেন এর মত সস দিয়ে বানানো হয়। এছাড়া সাপের পিত্তি ও শরীরের বিভিন্ন অংশ অনেকে খায়। অনেকে আবার মদের মধ্যে সাপ ঢুকিয়ে রাখে এবং পরে সেটি পান করে; তাদের ধারণা এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। সাপ চাষ করা ঐ গ্রামটিতে ঢুকলেই বোঝা যায় সেটি সাপেদের আঁতুর ঘর; থরে থরে সাজানো আছে কাঠের বাক্স এবং তাতে কিলবিল করছে সাপ। এছাড়াও চৌবাচ্চা করেও রাখা আছে সাপ, তবে এগুলো সবগুলোই অত্যন্ত বিষধর প্রজাতির।

Related Articles