অফবিট

কলেজ ছেড়ে ব্যবসা শুরু! ৫ বছরেই ভাগ্য বদল, ৭০ হাজার কোটি টাকার মালিক এই যুবক

বর্তমান বাজারে ‘ওয়ো’ (oyo) হোটেলের বারবারন্ত খুবই। যেকোনো জায়গায় ঘুরতে গেলে, ওয়োর থেকে সস্তা হোটেল হয়তো খুব একটা পাওয়া যাবে না। সস্তা হলেও কি হবে; ওয়োর পরিষেবা কিন্তু সব সময়তেই টপ ক্লাস থাকে! তাই অনেকেই কোথাও ঘুরতে যাওয়ার আগে, অনলাইনে ওয়োতে হোটেল বুক করে নেয়। বর্তমানে এই সংস্থা এতটাই সাফল্যের মুখ দেখেছে যে, সিকোয়া ক্যাপিটাল (sequoia capital)- এর সহযোগিতায় ৩৬০ মিলিয়ন টাকা বিনিয়োগ করে লাইটস্পীড ভেঞ্চার পার্টনার্সে (lights peed venture partners)। ওয়োর সাফল্য আজ সবার সামনে মন্ডিত হলেও, এর পিছনে রয়েছে এক বিশাল কাহিনী। দেশজুড়ে বিস্তারিত এই ওয়োর সংস্থার মালিকের কাহিনী শুনলে চমকে যাবে সাধারণ মানুষ।

20221112 152924

‘রিতেশ আগারওয়াল’ (Ritesh Agarwal) হলো ওয়োর প্রতিষ্ঠাতা; তার কথা অনুযায়ী, “তিনি কখনোই ভাবেননি এই ধরনের একটি ব্যবসা শুরু করবেন”। তবে বরাবরই ভ্রমণ প্রিয় মানুষ ছিল রিতেশ, বিভিন্ন সময়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় পাড়ি দিয়ে বেড়াতেন তিনি। যেখানেই যেতেন সেখানে সস্তার হোটেল খুঁজে পেতে মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হতো। আবার অনেক সময় সস্তার হোটেল পেলেও, সেগুলিতে ‘এ ক্লাস’ পরিষেবা পাওয়া যেতো না। সেই জায়গা থেকেই আমাদের দেশে হোটেলের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেছিলেন তিনি, মাত্র ১৮ বছর বয়সেই রিতেশ ‘ওরাভাল সেট’ নামে একটি কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।


অনেকেরই প্রশ্ন আসতে পারে, মাত্র ১৮ বছর বয়সে কোটিপতি ছাড়া কেউ এরকম ভাবনা চিন্তা মাথায় আনতে পারে না! কিন্তু রিতেশ একটি আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় ৬৬ লক্ষ টাকা পুরস্কার পেয়েছিলেন, সেটিকেই তিনি কাজে লাগিয়েছিলেন তার স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে। তবে এই কোম্পানি তার ভাগ্য ফেরাতে পারেনি! পরবর্তীকালে বিকল্প পথ হিসেবে ওয়ো রুমস অ্যাপ খুঁজে নিয়েছিলেন তিনি; এই অ্যাপের দৌলতেই তার জীবনের মোড় ঘুরে যায়। এতটাই লাভের মুখ দেখেছিলেন তিনি যে, মাত্র দশ মাসের মধ্যে ৮০ মিলিয়ন ডলারের মালিক হয়ে যান। বর্তমানে রিতেশ প্রায় ৭০ হাজার কোটি টাকার মালিক। এছাড়া গোটা দেশ জুড়ে তার ১৫ হাজারটা হোটেল রয়েছে, যেগুলোর সঙ্গে ১০ লক্ষ ওয়োর রুম যুক্ত।

Related Articles