অফবিট

ছেলেদের শার্টের বোতাম ডানদিকে আর মেয়েদের বামদিকে থাকে কেন? ৯৯% মানুষের জানা নেই উত্তর

ছেলে ও মেয়েদের পোশাক নিয়ে বিতর্ক যেন সর্বত্র। আগে পুরুষ-মহিলা পোশাকের বিভেদ থাকলেও, এখন সবই হয়ে উঠছে ইউনিসেক্স। মহিলারা নিজেদের এগিয়ে রাখার জন্য প্রতিযোগিতার দৌড়ে প্রাণপণ লড়াই করছে, ছেলেরাও চাইছে নিজেদেরকে জিতিয়েই রাখতে। সেক্ষেত্রে পোশাক যেন তুলনা করার এক জায়গায় এসে দাঁড়িয়েছে।


আগে কিছু কিছু পোশাক ছেলেদের জন্য এবং কিছু কিছু পোশাক মেয়েদের জন্য, আলাদা করে বরাদ্দ করে রাখা হতো। কিন্তু বর্তমানে দেখা যাচ্ছে ছেলেদের শার্ট-প্যান্ট, জিন্স; সবকিছুই মেয়েরা ব্যবহার করছে। তবে এই সবকিছু এক হয়ে গেলে এখনো পর্যন্ত ছেলেদের শার্টের বোতাম ডানদিকে আর মেয়েদের শার্টের বোতাম বাম দিকে রাখা হয়; খুঁটিয়ে দেখা গেছে এর কারণ রয়েছে বেশ কয়েকটি।

১) আগেকার দিনে ছেলেরা নিজেরা পোশাক পরলেও, মেয়েদের জন্য দাসী থাকতো; তারাই পোশাক পরিয়ে দিত। সেক্ষেত্রে পুরুষেরা বাম হাত ব্যবহার করলে ডান দিকে বোতাম থাকলে যেমন সুবিধা হত, ঠিক উল্টো দিক থেকে দাসীরা মেয়েদের পোশাক পরালে মেয়েদের বাম দিকে বোতাম থাকলে অধিক সুবিধা হতো।

২) নেপোলিয়ন বোনাপার্ট নাকি আদেশ দিয়েছিলেন মেয়েদের শার্টের বোতাম বাম দিকে রাখার জন্য। এর একমাত্র কারণ হলো: নেপোলিয়ন বোনাপার্ট এক হাতার শার্ট পড়তেন আর তার বোতাম থাকতো ডান দিকে। সেক্ষেত্রে তার পোশাকের সাথে সবার পোশাকের পার্থক্য রাখতে, সে তাদের পোশাকে বামদিকেই বোতাম রাখার নির্দেশ দিয়েছিল।

৩) মহিলারা অনেকেই বাচ্চাদের ব্রেস্ট ফিডিং করান; সে ক্ষেত্রে বাচ্চাদের বাম হাতে রেখে পোশাক খোলার ক্ষেত্রে যাতে অসুবিধা না হয়, তাই ডান দিকে বোতাম রাখাই অনেক সুবিধার।

৪) এছাড়া বর্তমান যুগেও দর্জিরা পোশাক বানানোর সময় ছেলেদের এবং মেয়েদের শার্ট যাতে মিলেমিশে একাকার না হয়ে যায়, সেই জন্য ছেলেদের শার্টের বোতাম ডানদিকে এবং মেয়েদের শার্টের বোতাম বাম দিকে রাখেন।সময় ছেলেদের এবং মেয়েদের শার্ট যাতে মিলেমিশে একাকার না হয়ে যায়, সেই জন্য ছেলেদের শার্টের বোতাম ডানদিকে এবং মেয়েদের শার্টের বোতাম বাম দিকে রাখেন।

Related Articles