অফবিট

মাধ্যমিক দেবার বয়সে PHD কমপ্লিট করে সমগ্র বিশ্বকে চমকে দিল এক বালক

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া এমন একটি জায়গা যেখানে মুহূর্তে ভাইরাল হয় ভিডিও, খবর। এবারে সেরকমই এক আশ্চর্য খবর ভাইরাল হলো। স্কুলে পড়ার বয়সে পিএইচডি করে গবেষণা করছে ১৫ বছরের একটি ছেলে। বালকটির বয়স তখন মাত্র ৭ কলেজ এ ভর্তি হয় সে। ১৪ বছর এর মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ শেষ করে গবেষণার কাজে লেগে পড়ে।বর্তমানে ছেলেটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিক্যাল ইন্জিনিয়ারিং এর স্নাতক ডাইরেক্টর হিসেবে প্রস্তুতি নিচ্ছে। ছেলেটির নাম তানিষ্ক আব্রাহাম। ইতিমধ্যেই সে আবিষ্কার করেছে যে একটি পুড়ে যাওয়া রোগীর শরীরে কোনো রকম স্পর্শ না করে হৃদ গতি মাপার যন্ত্র। তার এই আবিষ্কার গোটা বিজ্ঞান মহলকে অবাক করে দিয়েছে। বর্তমানে তানিষ্ক ক্যান্সারের মতো মরণ রোগের ঔষধ এর উপর গবেষণা করতে চায়।ছেলেটি বর্তমানে থাকে ক্যালিফোর্নিয়া তে। তবে তার আদি বাড়ি ভারতের কেরালায়। মা-বাবা এবং দাদু ঠাকমা শিক্ষিত হবার ফলে শিক্ষার পরিবেশ এই মানুষ হয়েছে তানিষ্ক।নার্সারিতে পড়ার সময় অনেক উঁচু ক্লাসে জটিল অংক সমাধান করে ফেলত সে এবং এটিই তার বাবা-মাকে অবাক করতে শুরু করে। ছোটবেলার তার এই সমস্ত অসাধারণ ঘটনা গুলির উপর ভিত্তি করে তার মা-বাবা বুঝতে পারেন যে তানিষ্ক আর পাঁচটা সাধারণ মানুষের মতো নয়।এর আগে বহু মেধা ভারতের নাম উজ্জ্বল করেছে। তবে এরকম খুদে প্রতিভার খোঁজ ভারতে প্রথম মেলে। ছেলেটির বর্তমান অবস্থান বিদেশে হলেও তার জন্মস্থান আমাদের এই ভারতবর্ষ।

Related Articles