মাছের ঝোল ভাত খাইয়ে অস্ট্রেলিয়ায় সেরা রাঁধুনির দৌড়ে এগিয়ে বাঙালি কন্যা কিশোয়ার চৌধুরী

Macher Jhol

বাঙালি মানেই মাছ। প্রতিদিন দুবেলা খাওয়ার পাতে বাঙালির মাছ চাইই চাই। কথায় বলে মাছে ভাতে বাঙালি। যে খাবারই থাকনা কেনো, খাওয়ার সময় বাঙালির পাতে মাছ না থাকলে খাওয়াটা ঠিক জমে না। তবে শুধু খাওয়া না, মাছ রান্না করতেও বাঙালি সমান পটু। মাছের এত বিভিন্ন পদ একমাত্র বাঙালি কোনো পরিবারেই দেখা যায়।

এবার সকল বাঙালির প্রিয় সেই মাছের ঝোল খায়িয়ে সুদূর অস্ট্রেলিয়ায় প্রশংসা আদায় করে নিলেন এক বাঙালি। ‘মাস্টারশেফ অস্ট্রেলিয়া’র বিচারকরা প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন বাঙালির প্রিয় মাছের ঝোলকে। সম্প্রতি ‘মাস্টারশেফ অস্ট্রেলিয়া’য় মাছের ঝোল রেঁধে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন এক বাংলাদেশি মহিলা। নাম কিশোয়ার চৌধুরী। ৩৮ বছরের কিশোয়ার বাংলাদেশি হলেও কর্মসূত্রে থাকেন অস্ট্রেলিয়ায়।

২০২১ সালের ‘মাস্টারশেফ অস্ট্রেলিয়া’র অন্যতম প্রতিভাবান প্রতিযোগী তিনি। শো এ অংশ নিয়ে একাধিকবার মাছের বিভিন্ন পদ রান্না করেছেন তিনি। আর প্রতিবারই বিচারকদের প্রশংসা কুড়িয়েছেন। সম্প্রতি, একটি এপিসোডে কিশোয়ার একদম সাধারণ ঘরোয়া মাছের ঝোল বানিয়েছেন। পেঁয়াজ, টম্যাটো দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বারমুন্ডি মাছের এই ঘরোয়া ঝোল খেয়েই প্রবল প্রশংসা করেছেন বিচারকরা।

বিচারকদের মধ্যে একজন এমনও বলেছেন, ‘এরকম সুস্বাদু রান্না খুবই কম খেয়েছি।’ কর্মসূত্রে বহু বছর ধরেই কিশোয়ার অস্ট্রেলিয়ার বাসিন্দা। রান্না করতে এবং খাওয়াতে খুবই ভালোবাসেন তিনি। পরবর্তীতে বাঙালি রান্না নিয়ে একটি বইও লিখতে চান তিনি।