আর কিছুক্ষণের মধ্যেই বজ্র – বিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস, জেলায় জেলায়

Today News

অশনি ঘূর্ণিঝড়ের (Cyclone Ashani) দাপটে শুরু হয়ে গিয়েছে গভীর নিম্নচাপ। গত মঙ্গলবার থেকেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি শুরু হয়ে গিয়েছে জেলায় জেলায়। দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া ঘূর্ণিঝড়ের ল্যান্ডফল না হলেও এর থেকে তৈরি হয়েছে নিম্নচাপ। ফলে বৃষ্টি অবধারিত। গতকাল থেকেই কলকাতা ও তার আশেপাশে অঞ্চলের আকাশ মেঘলা ছিল। বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হয়ে গিয়েছে।

Today News
আজকে অর্থাৎ বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই আকাশ মেঘলা। রোদ উঠলেও মেঘের দাপট বেশি। আজ সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস এর কাছাকাছি। ভ্যাপসা গরম থাকলেও বৃষ্টির প্রকোপে ঠান্ডায় পরিণত হবে পরিবেশ। যারা সমুদ্র উপকূলে থাকেন তাদের জন্য কিছুদিন আগে থেকেই সতর্কতা জারি রয়েছে। এছাড়া মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়া নিয়েও নিষেধাজ্ঞা জারি রেখেছে আবহাওয়ায় দপ্তর।

Today News

আলিপুর আবহাওয়া অফিস বলছে, আগামী শুক্র ও শনিবার পর্যন্ত বৃষ্টি হতে পারে পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, পূর্ব বর্ধমান, পশ্চিম বর্ধমানে। এছাড়া বৃষ্টি হবে কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনায়। বজ্র বিদ্যুৎ সহযোগে বৃষ্টির হাত থেকে রেহাই পাবে না বাঁকুড়া, বীরভূম, নদিয়া, মুর্শিদাবাদ।

Today News

উত্তর ও দক্ষিণ বঙ্গেও বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে। দার্জিলিং, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং এ ভারী ও মাঝারি বৃষ্টি হবে। তবে আগামী রবিবার উত্তর বঙ্গের সমস্ত জায়গায় ভারী বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে। তাই যারা পাহাড়ে ঘুরতে গেছেন তাদের জন্য সতর্কতা জারি রয়েছে। এককথায়, যারা সমুদ্র উপকূলের পাশে থাকেন এবং যারা পাহাড়ি অঞ্চলে থাকেন তাদের জন্য বিশেষ করে সতর্কতা জারি হয় সবসময়, কারণ এই দুই জায়গায় বৃষ্টির সময় দুর্ঘটনা বেশি হয়।