×
নিউজ

পরীক্ষার প্রশ্ন ছিল ‘বিয়ে কী’? পড়ুয়ার উত্তর দেখে মাথায় হাত শিক্ষকের

Advertisements
Advertisements

সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় এমন অনেক জিনিসই উঠে আসে, যেগুলি আমাদের অবাক করে তোলে! সম্প্রতি এমনই এক খুদের উত্তরপত্র রীতিমতো অবাক করে তুললো সাধারণ মানুষকে। উত্তরপত্রে এমন কিছু লেখা থাকতে পারে, যা দেখে মাথায় হাত সকলের! তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রের এমন কর্মকাণ্ডে সবাই যেমন বিচলিত, সেরকমএ প্রশ্ন উঠেছে শিক্ষকদের বিরুদ্ধেও! তাদের প্রশ্নপত্র নির্বাচন ঠিক নেই বলেও একাংশের দাবি।

Advertisements

তৃতীয় শ্রেণীর সোশ্যাল সাইন্স বিষয়ে শিক্ষকেরা প্রশ্ন করেছিলো ‘বিয়ে কি’? আর খুদে ছাত্র ঝরঝর করে বেশ কিছুটা তার উত্তরও লিখেছিল। তবে তার উত্তর আশানুরূপ হয়নি বলে, একেবারে দশে শূন্য বসিয়ে দিয়েছে শিক্ষকেরা। স্বাভাবিকভাবেই এতদূর শোনার পর সকলেই জানতে চাইবে যে, পড়ুয়া এমন কী লিখেছিল! যার জন্য একেবারে শূণ্য পেতে হলো। তাহলে দেখে নিন খুদের উত্তর কি ছিল।


সে লিখেছিল, “যখন কোন মেয়ে বড় হয়ে যায় এবং তার বাবা-মা বলে তুমি বড় হয়ে গেছো তোমাকে আর খাওয়াতে পারব না। তখন সে বাইরে গিয়ে মানুষ খুঁজে, যে তাকে খাওয়াতে পারবে। এরপর মেয়েটির একটি ছেলের সঙ্গে দেখা হয় এবং বাবা-মা তাকে বকাঝকা করে তুমি বড় হয়ে গেছো, বিয়ে করে নাও। আর তখনই তাদের বিয়ে হয়ে যায়”। এরপরে আরো লিখেছে ওই খুদেটি, সে লেখে “ছেলে-মেয়ে দুজনেই একে অন্যকে পরীক্ষা করে, তারপর তারা একসাথে থাকতে রাজি হয়। এরপরে তারা সন্তানের জন্য উল্টাপাল্টা কাজ করে”। এই উত্তর দেখে নেটিজেনদের একাংশ হাসি-ঠাট্টা করলেও, শিক্ষকদের বিরুদ্ধে স্টেপ নিতেও অনেকে জানিয়েছে।

Advertisements