×
নিউজ

বাজারে ফিরছে Maruti Omni EV, ‘কিডন্যাপিং কার’ এবার নয়া ইলেকট্রিক রূপে

Advertisements
Advertisements

একসময় গোটা বাজার ছেয়ে গেছিলো এই বিশেষ মাল্টি পার্পাস ভেহিকেল সেগমেন্টে (MPV)। মারুতি অমনি ভ্যানের জনপ্রিয়তা ছিল সেই সময় তুঙ্গে। ভারতীয় বাজারে এই বিশেষ জায়গাবহুল গাড়ি একসময় ব্যাপক চলেছিল। বাইরে থেকে দেখে ছোটখাটো লাগলেও ভেতরে আটজন বসতে পারতো বেশ ভালোভাবে। ‘কিডন্যাপিং কার’ এই গাড়িকে আখ্যা দেওয়া হতো বেশিরভাগ সময়। কারণ বলিউড থেকে টলিউড সব জায়গাতেই বিভিন্ন কিডন্যাপের দৃশ্যতে এই গাড়ি ব্যবহার করা হতো।

Advertisements

হঠাৎ করেই ৩৫ বছর ধরে রাজত্ব করা মারুতি অমনির প্রোডাকশন বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। ২০১৯ সালে শেষের দিকে আর বাজার ধরে রাখতে পারছিল না এই গাড়ি। গাড়ির চালকদের জন্য একাধিক বিষয়ে পছন্দ করার সুযোগ থাকতো, এই গাড়িতে চালকরা চাইলেই নিজেদের পছন্দগত সাজিয়ে-গুছিয়ে নিতো। ১৯৮৪ সালে প্রথম Maruti 800 আসার ঠিক পরেই, মারুতি অমনি গাড়ি ভারতীয় বাজারে এসেছিল। কিন্তু পরবর্তীকালে 7th জেনারেশন সুপার ক্যারিতে ব্যাজেড হয়, যার ফলে এই গাড়ির নতুন যেসব নাম্বারগুলি নতুন করে আপডেট করার সুযোগ ছিল না। এই কারণেই গাড়ি বন্ধ করে দেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল মারুতি সুজুকি।

তবে একসময় MPV গাড়ির চাহিদা ছিল বাজারে তুঙ্গে। ২০১৮ সাল পর্যন্ত ১৫.৭ মিলিয়ন গাড়ি বিক্রি পর্যন্ত হয়েছিল। এমনকি গাড়িটিতে অনেক বেশি জায়গা থাকার দরুণ পাকিস্তানে এটিকে ‘মিনিবাস’ বলে আখ্যা দেওয়া হতো। তবে বর্তমানে আবারও নয়া রূপে আসতে চলেছে এই মারুতি অমনি, তাও আবার ইলেকট্রিক ভার্সনে। নতুন ইকো গাড়িতে থাকতে চলেছে একাধিক ফিচারস, যার মধ্যে অন্যতম হলো কো ড্রাইভার সিটবেল্ট রিমাইন্ডার, রিজার্ভ পার্কিং প্রভৃতি। বর্তমান বাজারে এই গাড়িটির দাম শুরু হবে ৫.১০ লাখ টাকা থেকে।

এছাড়া এই গাড়িতে থাকতে চলেছে সামনে এলইডি লাইট, ডোর হ্যান্ডেল, রিয়ার-ভিউ ক্যামেরা ও লো ড্র্যাগ হুইল। এমনকি ব্যবহারকারীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে, আগের মতনই এই গাড়ি হতে চলেছে আটজনের বসার যথোপযোগী। একবার চার্জ দিলেই ৩০০ থেকে ৪০০ কিলোমিটার পর্যন্ত যাবে এই গাড়ি। আরবান ও রুরাল দুই তরফের চালকদেরই বেশ সুবিধা এনে দেবে এই নতুন ইকো গাড়ি।

Advertisements