নিউজবিনোদন

Tv Mahalaya: মহালয়ায় আর ডাক আসেনা, চরম দারিদ্রতায় দিন কাটছে ‘অমল অসুর’-এর

পুজো শুরুর প্রাক্কালে মহালয়া যেন এক নতুন সুর বয়ে আনে বাঙালির মনে। টিভিতে মহালয়া দেখার জন্য উৎসুক হয়ে থাকে সবাই আর এই টিভির পর্দায় জনপ্রিয় ছিল মহালয়ার ‘অমল অসুর’। একসময় মহালয়া করার জন্য, অসুরের চরিত্রে ডাক পেতেন তিনি। বর্তমানে আর সেরকম ডাক আসেনা তার, দিন কাটছে অভাব-অনটনে।

মহালয়ার সকাল হলেই ডিডি বাংলার (DD bangla) পর্দায় যাকে অসুর বা যমরাজের চরিত্রে দেখা যেত, সেই হলো অমল অসুর। তার অট্টহাসির জন্যই, সে অধিক পরিচিত হয়েছিল সকলের মনে! তার হাসির চোটেই ভয় পেত শিশু থেকে শুরু করে বড়রা পর্যন্ত। এর সাথে উন্নত বক্ষ, গোলগোল চোখ, বাঁকানো দাড়ি; সবমিলিয়ে যেন ঐ চরিত্রটি তার জন্যই তৈরি এমনটাই মনে হতো। মহালয়াতেই শুধু নয়, বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতে বহু কাজেই তার ডাক পড়তো। তবে এখন সেসব অনেক দূরের কথা আর সেরকম অট্টহাসিও আসে না অমল অসুরের।


বাড়িতে আছে অবিবাহিতা বোন, বিয়ে না করলেও বোনের দায়িত্ব কাঁধে আছে অমলের। তাই পেটের দায়ে বাড়ি বাড়ি ঘুরে আঁকা শেখানোই হয়ে উঠেছে এখন তার একমাত্র সম্বল। কোনরকম সরকারি ভাতাও তিনি পান না। রং তুলি দিয়েই অত্যন্ত কষ্টে চলছে তার দিনযাপন; উপার্জন প্রায় নেই বললেই চলে। অশোকনগরের ১০ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা তিনি, একসময় সেখানকার নাট্যচর্চা তেও তার উপস্থিতি ছিল নিত্য। তবে এখন আর কেউ তার খোঁজ রাখে না।

Related Articles