নিরামিষ খাবার খান আঙুল চেটে, বাড়িতে বসে খুব সহজে বানিয়ে ‘আলুর দম’, রইল রেসিপি

Alur Dom Recipe

সব সময় পিয়াজ, রসুন দিয়ে রান্না হয়তো খেতে ভালো লাগে না। কিংবা বৃহস্পতিবার বা শনিবার অনেকেই নিরামিষ আহার করেন সেদিন রুটি, লুচি, পরোটা বা পোলাও বা ফ্রাইড রাইসের সঙ্গে কি খাবেন যদি ভেবে না পান, তাহলে অবশ্যই বানিয়ে ফেলতে পারেন এই অসাধারণ রেসিপি। অথবা বাঙালির সামনেই জামাইষষ্ঠী, এই দিন এমনিতেই পেঁয়াজ, রসুন দিয়ে রান্না হয় সেক্ষেত্রে সকালের জলখাবার যদি এমন একটি পেঁয়াজ, রসুন ছাড়া আলুর দম বানিয়ে ফেলতে পারেন তাহলে মন্দ হয় না।

উপকরণ –
ছোট আলু এক কিলো
পালংশাক আড়াইশো গ্রাম
ধনেপাতা একমুঠো
নুন, মিষ্টি স্বাদ মত
আমচুর পাউডার ১ টেবিল চামচ
হলুদ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ
লঙ্কাগুঁড়ো স্বাদমতো
তিনটি বড় আকারের টমেটো
কাঁচা লঙ্কা স্বাদমতো
টক দই ১ কাপ
জিরে গুঁড়ো ১ টেবিল চামচ
ধনে গুঁড়া ১ টেবিল চামচ
হলুদ গুঁড়ো ১ টেবিল চামচ
লঙ্কাগুঁড়ো স্বাদমতো
কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো ২ টেবিল চামচ
মৌরি গুঁড়ো ১ টেবিল চামচ
কসৌরি মেথি গুঁড়ো ১ টেবিল চামচ
সরষের তেল ৬ টেবিল চামচ
দারচিনি, এলাচ, তেজপাতা, লবঙ্গ
বেসন ২ টেবিল চামচ

প্রণালী – পালং শাক, ধনেপাতা এবং টমেটোকে খুব ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর প্রেসার কুকারে ভালো করে সেদ্ধ করে নিতে হবে। টমেটো চারিদিকে ভালো করে ছুরি দিয়ে কেটে সিদ্ধ করে নিলেই খুব সহজে টমেটোর খোসা হাত দিয়ে বেরিয়ে আসবে। প্রেসার কুকার থেকে বার করে ভালো করে ঠাণ্ডা করে নিতে হবে। তারপর মিক্সিতে একটি সুন্দর পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। ইতিমধ্যে আলু টুকরোগুলি সরষের তেলে ভালো করে ভাজা ভাজা করে তুলে রাখতে হবে। এরপর টক দইয়ের মধ্যে উপরে বলে রাখা সমস্ত গুঁড়ো মশলা ভাল করে মিশিয়ে নিতে হবে।

Alur Dom Recipe

কড়াইতে সরষের তেল গরম করে দারচিনি, এলাচ, তেজপাতা, লবঙ্গ, শুকনো লঙ্কা দিয়ে তার মধ্যে সামান্য বেসন দিয়ে ফেটিয়ে রাখা দই দিয়ে দিতে হবে। ভালো করে কষিয়ে নেওয়ার পর পালংশাকের পেস্ট দিয়ে দিতে হবে। সমানে খুন্তি দিয়ে নাড়াচাড়া করতে হবে। মশলা থেকে তেল ছেড়ে গেলে এরপর আলু টুকরোগুলো দিয়ে সামান্য গরম জল দিয়ে অন্তত ১০ মিনিটের জন্য ঢাকা দিয়ে রাখতে হবে ঢাকা খুলে বেশ মাখোমাখো হয়ে গেলে ওপরে ধনেপাতা কুচি, আমচুর পাউডার,নুন, মিষ্টি স্বাদমতো এবং যদি ভালো লাগে তো সামান্য কিছু দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন আদা, পেঁয়াজ, রসুন ছাড়া আলুর দমের রেসিপি।