লাইফস্টাইল

ডিমের এই অসাধারণ তরকারি বানিয়ে ফেলুন বাড়িতেই, স্বাদ হবে দুর্দান্ত, শিখে নিন রেসিপি

বাঙালি মানেই খাদ্যরসিক। বাঙালি খেতে ভালোবাসে না এরকম খাদ্য খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। আরদিন হলে তো কোন কথাই নেই। প্রায় প্রত্যেক দিনই বাঙালি-বাড়িতে ডিমের ঝোল কিংবা ঝাল হয়ে থাকে। এছাড়াও ডিমের পোচ, ডিমের ওমলেট ইত্যাদি বাঙালির রোজকার খাবার। ডিম বাঙালির যতই প্রিয় খাদ্য হোক না কেন প্রত্যেকদিন কি আর একই খাবার খেতে ভালোলাগে!! তাই জন্যই আজ আপনাদের আমরা শেখাবো ডিমের একেবারে নতুন রেসিপি, ‘চিলি এগ রেসিপি’। যা একবার খেলে মুখে লেগে থাকবে সারাজীবন।

প্রথমে দেখে নেওয়া যাক ডিমের নতুন রেসিপি বানানোর জন্য কী কী উপকরণ প্রয়োজনীয়:
১. ডিম
২. নুন
৩. লঙ্কা
৪. হলুদ
৫. গুঁড়ো লঙ্কা
৬. ক্যাপসিকাম
৭. পেঁয়াজ
৮. গোলমরিচ পাউডার
৯. ময়দা
১০. কনফ্লাওয়ার
১১. চিলি সস
১২. সয়া সস
১৩. কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো

এবার দেখে নেওয়া যাক ‘চিলি এগ’ বানানোর জন্য কী কী প্রণালী অবলম্বন করতে হবে:

১. প্রথমে একটা পাত্রে ডিমগুলো খুব ভালো করে ফেটিয়ে নিয়ে তার মধ্যে লঙ্কাগুঁড়ো এবং গোলমরিচ দিয়ে বেশ কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করতে হবে।

২. তারপর একটি স্টিলের বাটি নিয়ে তাতে খুব ভালো করে তেল মাখিয়ে ডিমের মিশ্রণটিকে তার মধ্যে ঢেলে দিতে হবে।

৩. এরপরে একটা কড়াইয়ে কিছুটা পরিমাণ জল নিয়ে তার ওপর এই বাটিটি বসিয়ে ঢাকা দিয়ে রাখতে হবে ১০ মিনিটের জন্য।

৪. তারপর ঢাকা খুলে ডিমটিকে চৌকো চৌকো করে কেটে নিতে হবে।

৫. এবার ব্যাটার বানানোর জন্য একটা পাত্রের মধ্যে ময়দা, কনফ্লাওয়ার, লঙ্কাগুঁড়ো, স্বাদমতো নুন, জল নিয়ে একটি ব্যাটার বানিয়ে দিতে হবে।

৬. এরপর কেটে রাখা ডিমের পিসগুলিকে এই ব্যাটারের মধ্যে খুব ভালো করে মাখিয়ে নিয়ে একটি কড়াইয়ে পরিমাণমত তেলে ভেজে নিতে হবে।

৭. ডিম ভাজা হয়ে গেলে সেই তেলেই দিয়ে দিতে হবে রসুন কুচি, লঙ্কা কুচি, ক্যাপসিকাম কুচি, পেঁয়াজ কুচি। এগুলিকে খুব ভাল করে ভেজে নিতে হবে।

৮. তারপর এরমধ্যেই দিয়ে দিতে হবে টমেটো সস সয়া সস, কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো, স্বাদমতো নুন এবং চিলি সস।

৯. সমস্ত উপকরণগুলো খুব ভালো করে নাড়াচাড়া করে নিয়ে এবারে ভেজে রাখা ডিমের পিসগুলো দিয়ে দিতে হবে। দুই থেকে তিন মিনিট খুব ভালো করে নাড়াচাড়া করে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে গরম গরম ‘চিলি এগ’।

Related Articles