বলিউডের ষড়যন্ত্রের কারণে মনোনীত হয়েও পাননি জাতীয় পুরস্কার, আক্ষেপ নিয়েই চলে যান রীতা কয়রাল

Bollywood

একসময় টলিউডে দাপিয়ে অভিনয় করে বেড়িয়েছেন অভিনেত্রী রীতা কয়রাল (Rita Koiral)। মূলত নেগেটিভ চরিত্রে অভিনয় করে তিনি দর্শকমহলে পরিচিত হয়ে উঠে ছিলেন। তাঁর অভিনয় এতই সাবলীল এবং জীবন্ত যে সবাই ক্ষেপে উঠতে তাঁকে পর্দায় দেখলেই। অভিনয়ের সঙ্গে সঙ্গে নাচেও পারদর্শী ছিলেন তিনি। কিন্তু এত প্রতিভা সত্বেও ইন্ডাস্ট্রিতে যোগ্য সম্মান পাননি রীতা কয়রাল।

১৯৫৯ সালে কলকাতাতে জন্মগ্রহণ করেন অভিনেত্রী। তাঁর পথচলা শুরু হয় দূরদর্শনের হাত ধরে, একজন সংবাদ পাঠিকা হিসেবে। এরপর তিনি বিষ্ণু পাল চৌধুরী পরিচালিত ‘জননী’ ধারাবাহিকে অভিনয়ের সুযোগ পান। এখানেই দুর্দান্ত অভিনয় করে নিজেকে প্রমাণ করে দেন তিনি। এরপর আর তাঁকে ফিরে তাকাতে হয়নি। অপর্না সেন,ঋতুপর্ণ ঘোষ, অঞ্জন দত্তের মতো বিখ্যাত পরিচালকরা তাঁর সঙ্গে কাজ করার জন্য মুখিয়ে থাকতেন। কিন্তু আক্ষেপ নিয়েই মৃত্যু তাঁর। কাজ, প্রতিভা অনুযায়ী যোগ্য সম্মান পাননি তিনি কখনোই।

এমনকি সাক্ষাৎকারে রীতা জানিয়েছিলেন কিভাবে জাতীয় পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েও বঞ্চিত হন তিনি। ঋতুপর্ণ ঘোষের ছবি বাড়িওয়ালি’তে কিরণ খেরের গলায় ডাবিং করেছিলেন রীতা। এই ছবি জাতীয় পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়। কিরণ খেরের পাশাপাশি রীতা কয়রালও জাতীয় পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন। কিন্তু পুরস্কার পাননি তিনি। রীতা এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, কিভাবে প্রযোজক অনুপম খেরের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছিলেন তিনি। সারাজীবন সেই কষ্ট বুকে নিয়ে বয়েছেন অভিনেত্রী। এরপরও দাপিয়ে অভিনয় করে বেড়িয়েছেন।

টলিউডে তাঁকে বলা হতো, লেডি বিবেকানন্দ। তিনি নাকি একবার স্ক্রিপ্ট দেখেই ২০ পাতা না দেখেই পড়ে ফেলতে পারতেন। টলিউডের আর এক খলনায়ক সৌমিত্র বন্দোপাধ্যায়কে বিয়ে করেন তিনি। কিন্তু বিয়ের কয়েকদিনের মধ্যেই মারা যান স্বামী। নানান ঝড় ঝাপটা এসেছে কিন্তু থেমে যাননি। আবারও বিয়ে করেন, নতুন শুরু করেন।

অভিনয়ের সঙ্গে চালিয়ে যান নাচও। নিজের একটি নাচের স্কুলও খোলেন তিনি। নাচ ও অভিনয় নিয়ে দিব্যি চলে যাচ্ছিল দিনগুলো। কিন্তু হঠাৎই জানতে পারেন লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে পড়েছেন অভিনেত্রী। এরপর বেশ কয়েক বছর ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে ২০১৭ সালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তাঁর মৃত্যুতে সাময়িকভাবে টলিউড শোকস্তব্ধ হয়ে পড়লেও, শেষ কৃত্যে পাশে পাননি ইন্ডাস্ট্রির কাউকেই। তবে তাঁর অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি আজও জীবিত দর্শকদের মনে।