Sunday, November 28, 2021

শাহরুখ খানের বাবা ছিলেন স্বাধীনতা সংগ্রামী, রইল অভিনেতার জীবনের এক অজানা কাহিনী

2 রা নভেম্বর 56 বছর বয়সে পা দিলেন শাহরুখ ‘কিং’ খান (Shahrukh Khan)। ‘মন্নত’-এর বাইরে আগের দিন রাত থেকেই ভক্তদের ভিড় নিয়ন্ত্রণ করছে মুম্বই পুলিশ। অপরদিকে আলিবাগ ফার্ম হাউসের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন কিং খান ও তাঁর পরিবার। চলতি বছর জাঁকজমক করে পালিত হচ্ছে না শাহরুখের জন্মদিন। বিতর্ক যেন ঘিরে ধরেছিল কিং খান-কে। তাঁর পুত্র আরিয়ান খান (Aryan Khan) মাদক কান্ডে গ্রেফতার হয়ে ছাব্বিশ দিন জেলে থাকার পর সবেমাত্র জামিন পেয়ে বাড়ি ফিরেছেন। কিন্তু তার আগে শাহরুখের ধর্ম নিয়ে তাঁকে কটাক্ষ শুনতে হয়েছে। নেটিজেনদের একাংশ তাঁকে বলেছেন পাকিস্তানে চলে যেতে। কিন্তু একজন স্বাধীনতা সংগ্রামীর ছেলেকে এই কথা বলতে কারোর বিবেকে বাধেনি।

হ্যাঁ, এটাই সত্য। হয়তো অনেকেই ভাববেন, এটি গাঁজাখুরি গল্প। কিন্তু চাইলে একবার নেট সার্চ করে দেখে নিতে পারেন। শাহরুখের বাবা তাজ মুহম্মদ খান (Taj Muhammad Khan) পেশোয়ারের মানুষ হলেও ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশ নিয়েছিলেন। এমনকি জেলেও গিয়েছিলেন বিপ্লবী তাজ মুহম্মদ। ভারত স্বাধীন হওয়ার পর মৌলানা আবুল কালাম আজাদ (Moulana Abul Kalam Azad)-এর বিরুদ্ধে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। তবে পেশাগত ভাবে তিনি উকিল ছিলেন। শাহরুখের বাড়িতে ‘হিন্দকো’ ভাষায় কথা বলা হত। এটি পাকিস্তানে পঞ্জাবী চলিত ভাষা হিসাবে ব্যবহৃত হয়। ফলে শাহরুখের হিন্দি উচ্চারণ ভালো ছিল না। টিভি দেখে হিন্দি শিখেছিলেন শাহরুখ।

মুসলমান হওয়ার কারণে বলিউডের বাদশাকে একদিন মুম্বইয়ের মাটিতেই হেনস্থার শিকার হতে হয়েছিল। শাহরুখ তখন বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে নিউকামার।মুসলমান হওয়ার কারণে শাহরুখ ও গৌরী (Gauri Khan)-কে অনেকেই বাড়ি ভাড়া দিতে চাইতেন না। এমনকি বাড়ি ভাড়া দিলেও ইচ্ছাকৃত পাম্প না চালাতে দিয়ে তাঁদের জলকষ্ট দেওয়া হত। আজ সেই মুম্বইয়ের মাটিতে দাঁড়িয়ে রয়েছে শাহরুখের বাংলো ‘মন্নত’।

মায়ের মৃত্যুর দিন হেমা মালিনী (Hema Malini)-র অফিস থেকে শাহরুখকে ফোন করে জানানো হয়েছিল, তিনি ‘দিল আশনা হ্যায়’-এর জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। শাহরুখ তখন দিল্লিতে। তিনি তাঁর মায়ের মৃত্যুর খবর দিয়ে মুম্বই আসার জন্য সময় চাইলে কঠোরভাবে ফোনের ওপার থেকে বলা হয়েছিল, তা সম্ভব নয়। তাহলে তাঁকে ফিল্ম থেকে বার করে দেওয়া হবে। শাহরুখের হাতে তখন কাজ ছিল না।

মায়ের কবরে মাটি দিয়ে একবুক হাহাকার নিয়ে দিল্লি থেকে মুম্বইয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন শাহরুখ। ‘দিল আশনা হ্যায়’ শাহরুখ অভিনীত প্রথম ফিল্ম হলেও তার আগে রিলিজ করেছিল শাহরুখ অভিনীত দ্বিতীয় ফিল্ম ‘রাজু বন গয়া জেন্টলম‍্যান’। বারবার প্রত্যাখ্যান শাহরুখকে করেছে বলিউডের বেতাজ বাদশা। কিন্তু দিনের শেষে রাজমুকুট তো কাঁটার হয় , তাই না?

⚡ Trending News

আরও পড়ুন