বিনোদন

বাবার মৃত্যুতে মন স্থির রেখে নিজের হাতে শেষকৃত্য সারলেন রবীনা ট্যান্ডন, কুর্নিশ নেটবাসির

পিতৃহারা হলেন বলিউডে বিখ্যাত অভিনেত্রী রবীনা ট্যান্ডন। শুক্রবার ভোররাতে ৩টে ৪৫ মিনিট নাগাদ মুম্বাইয়ের জুহুতে নিজের বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তাঁর বাবা পরিচালক রবি ট্যান্ডন। তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর। বার্ধক্যজনিত অসুস্থতার সাথে লড়াই করছিলেন দীর্ঘদিন ধরেই। লান্স ফ্রায়ব্রোসিসের মতো সমস্যাও ছিল। শুক্রবার রবীনা তাঁর বাবার শেষকৃত্যও সম্পন্ন করেছেন। বাবার প্রয়াণে শোকাকুল হয়ে নিজেই তাঁর পিতৃবিয়োগের সংবাদ জানিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।
}
অতিসম্প্রতি তিনি শেয়ার করেছেন ৪টি থ্রোব্যাক ছবি। প্রথম ছবিতে দেখা যাচ্ছে, তিনি তাঁর বাবার হাত ধরে হেঁটে চলেছেন। দ্বিতীয় ছবিটা তাঁর ছোটবেলার। সেখানে দেখা যাচ্ছে ছোট্ট রবিনার বাবা তাঁকে কোলে নিয়ে বসে রয়েছেন। তৃতীয় ছবিতে দেখা যাচ্ছে, তিনি বাবার সাথে একটি অনুষ্ঠানে বসে আছেন এবং চতুর্থ ছবিটা বেশ আবেগ মেশানো। দেখা যাচ্ছে, বাবাকে জড়িয়ে ধরে তাঁর গালে চুমু খাচ্ছেন রবীনা।

রবীনা ট্যান্ডন ওই আবেগপূর্ণ ছবিগুলির ক্যাপশনে লিখেছেন, “তুমি সবসময় আমার সাথে পথ চলবে, আমি সবসময় তোমার মতোই থাকব। আমি কখনই তোমাকে আমায় ছেড়ে যেতে দেবো না। ভালোবাসি তোমায় পাপা।” নামি তারকারাও শোক প্রকাশ করেছেন তাঁর পোস্টে। স্ময়ং শিল্পা শেট্টি ও নীল। লিখেছেন, ” হৃদয়ভরা সমবেদনা।” চানকি পান্ডে সহ আরও অনেকে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন স্বনামধন্য পরিচালক রবি ট্যান্ডনকে।


বলা বাহুল্য, মেয়ে বোঝে বাবা হারিয়ে গেলে কতটা কষ্ট। তবুও সমবেদনা এইক্ষেত্রে অনেক সাহায্য করে। রবি ট্যান্ডন তার ক্যারিয়ারে অনেক বড় বড় ছবি পরিচালনা করেছেন। এর মধ্যে রয়েছে ‘খেল খেল মে’, ‘আনহোন’, ‘নাজরানা’, ‘মজবুর’, ‘খুদ্দর’ এবং ‘জিন্দেগি’। এদিন সান্তাক্রুজ শ্মশানে রবি টন্ডনের মুখাগ্নি করেন রবীনা নিজেই। উপস্থিত ছিলেন পরিচালক ফারহা খান, ঋদ্ধিমা পণ্ডিতের মতো অনেকেই।

Related Articles