Saturday, January 22, 2022

‘ইষ্টিকুটুম না ছাড়লে মরেই যেতাম’, এতদিন পর জনসমক্ষে মুখ খুললেন ‘বাহামনী’ রনিতা দাস

২০১১-এর স্টার জলসা চ্যানেলের বেশ জনপ্রিয় ধারাবাহিক হলো ‘ইষ্টিকুটুম’। সেই ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্র ‘বাহা’ অর্থাৎ রনিতা দাস এই ধারাবাহিকের মাধ্যমে সকল দর্শকের মন এক নিমিষেই জয় করেন। এই ধারাবাহিকে বাহার চরিত্রটিকে সকলেই ভালোবেসেছিলেন। গ্রাম্য মেয়ের মিষ্টি কথার, আলাদা রকম ভাষার এই ধারাবাহিকটি সকলেই দেখতে পছন্দ করতো। আর রনিতা দাসের অভিনয়েরও যেন কোনো ত্রুটি ছিল না। যেমন তার চরিত্র তেমনি বাস্তবেও তিনি তাই। ইষ্টিকুটুম ধারাবাহিকের পূর্বে তিনি ‘ধন্যি মেয়ে’ ধারাবাহিকটি করলেও তিনি এত জনপ্রিয়তা পায়নি। কিন্তু হঠাৎই তাকে ছাড়তে হলো এই ইষ্টিকুটুম ধারাবাহিকটি। তারপরে তাকে দেখা যায়নি আর অন্য কোন ধারাবাহিকে। তার ধারাবাহিকে কাজ ছাড়ারকারণ ও তাকে দেখা না যাওয়ার কারণ জেনে অবাক হবেন আপনিও!

ইষ্টিকুটুম ধারাবাহিক করার সময় বাহা চরিত্রটি এত তাড়াতাড়ি জনপ্রিয়তা পেয়েছিল যে এই জনপ্রিয়তা পেয়ে বাহা চরিত্রে অভিনেত্রী অর্থাৎ রনিতা দাসের নাকি মাথা বিগড়ে গিয়েছিলো। এমনই শোনা যায় অনেকের মুখে। আর সেই কারণেই তিনি ছিলেন তার শুটিংও। কিন্তু সম্প্রতি অভিনেত্রী রনিতা দাস জানান যে, তার এই ধারাবাহিকটি ছাড়ার প্রধান কারণ ছিল তার শারীরিক অসুস্থতা।সেই সময় তার ওভারিতে একটি গুরুতর সমস্যা হয়েছিল, যার ফলে তাঁর মেরুদণ্ডে প্রচন্ড ব্যথা যন্ত্রণার সৃষ্টি হয়েছিল এবং তিনি দাঁড়াতে পারতেন না বেশিক্ষণ। আর তার ওজনও বেড়ে যাচ্ছিল ক্রমাগত। এই অবস্থায় তার শুটিং চালিয়ে যাওয়াটা অসম্ভব ব্যাপার ছিল। তার ফলেই তাকে ছাড়তে হয়েছে ইষ্টিকুটুম এর মতো জনপ্রিয় ধারাবাহিকের জনপ্রিয় চরিত্র। যার ফলে তার বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করা হয়।

আর রনিতা দাস ইষ্টিকুটুম ছাড়ার কিছু দিনের মধ্যেই তার প্রেমিক সৌপ্তিক চক্রবর্তী ছেড়ে দেন ‘জল নুপুর’ ধারাবাহিকটি। অনেকেই মনে করেন দুজনে আলোচনা করেই এই ধারাবাহিকগুলি থেকে কাজ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু অভিনেত্রী বলেন, তারা দুজনেই আলাদা আলাদা কারণে কাজ ছাড়েন। কিন্তু তা অনেকেই মানতে নারাজ হন এবং তাদের দু’জনকেই এই ইন্ডাস্ট্রিজ থেকে ব্যান করা হয়। ফলে দুইজনেরই কেরিয়ারও নষ্ট হয়ে যায়। যার ফলে সৌপ্তিকে ছাড়তে হয় তিনটে সিনেমাও।

⚡ Trending News

আরও পড়ুন