×
বিনোদন

ভেসে আসত ঘুঙুরের শব্দ, শুনতে পেতেন মেয়েদের আওয়াজ, ভৌতিক অভিজ্ঞতার সম্মুখীন প্রসেনজিৎ

Advertisements
Advertisements

ইন্দ্রপুরী স্টুডিও নিয়ে অনেকের মুখেই অনেক কথা শোনা যায়। স্টুডিওটি নাকি হন্টেড। বহুদিন আগে এক টেকনিশিয়ান নাকি ওই স্টুডিওয় আত্মহত্যা করেছিলেন, এমনটাও শোনা গেছে। কিন্তু সম্প্রতি প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জী (Prosenjit Chatterjee) একটি সাক্ষাৎকারে জানালেন, ইন্দ্রপুরীতে তাঁর ভৌতিক অভিজ্ঞতার কথা।

Advertisements

প্রসেনজিৎ-এর মামাবাড়ি দমদমে। শৈশবে আর পাঁচটা বাচ্চার মতোই তিনিও ভুতের গল্প শুনতে পছন্দ করতেন। কিন্তু বাস্তব জীবনে কয়েকবার তিনি নিজেও কোনো অশরীরি উপস্থিতি অনুভব করেছেন। এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে প্রসেনজিৎ জানান, একসময় কাজের জন্য রাতে প্রায়ই ইন্দ্রপুরী স্টুডিওতে থাকতে হত। কখনও লেট নাইট শুট চলত। সেই সময় বহু কলাকুশলীদের মুখেই প্রসেনজিৎ শুনেছেন, ইন্দ্রপুরীর একটি বিশেষ ঘরের কথা। সেই ঘর থেকে নাকি মেয়েদের হাসির আওয়াজ, ঘুঙুরের শব্দ শোনা যায়। সেই সময়ের ইন্দ্রপুরীর পরিবেশ ছিল অন্য রকম। অনেক রাতে মেকআপ রুমে শুতে গিয়ে প্রসেনজিৎ-এর কানেও এসেছে এই ধরনের শব্দ।

বিগত চল্লিশ বছর ধরে নিয়মিত শুটিং করে আসা প্রসেনজিৎ লকডাউনের কারণে দেড় বছর গৃহবন্দী ছিলেন। থমকে গিয়েছিল ফিল্মের কাজ। মানসিক অবসাদ গ্রাস করছিল তাঁকেও। তবে আপাতত আবারও অভিনয়ে ফিরেছেন তিনি। 15 ই নভেম্বর থেকে শুরু হয়েছে ‘আয় খুকু আয়’ ফিল্মের শুটিং। এই ফিল্মে দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করছেন প্রসেনজিৎ। তাঁর মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন দিতিপ্রিয়া (Ditipriya Roy)।

এছাড়াও দেব (Dev)-এর প্রযোজনায় তৈরি ফিল্ম ‘কাছের মানুষ’-এ অভিনয় করছেন প্রসেনজিৎ। মহালয়ার দিন এই ফিল্মের মোশন পোস্টার ভাইরাল হয়েছে।

Advertisements