বিনোদন

শরীরে নেই একটুকরো সুতো, সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে হট পোজে নেটদুনিয়ায় ঝড় তুললেন পরিনীতি চোপড়া

পরিনীতি চোপড়া একজন ভারতীয় অভিনেত্রী। ২০১১ সালে “লেডিস ভার্সেস রিকি বেহেল” চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয় তাঁর। কিন্তু তাঁর ইচ্ছে ছিল শুরুতে একজন ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকার হওয়ার, তবে ম্যানচেস্টার বিজনেস স্কুল থেকে ব্যবসা, ফিন্যান্স এবং অর্থনীতিতে তিনটি স্নাতক ডিগ্রি নেওয়ার পর ২০০৯ সালে তিনি ভারতে চলে আসেন। ভারতে এসে যশ রাজ ফিল্মস -এ ‘জনসংযোগ পরামর্শক’ হিসেবে কাজ শুরু করেন। সেই প্রতিষ্ঠানেই কর্তব্যরত অবস্থাতেই চলচ্চিত্র পরিচালক মনীশ শর্মা’র নজরে আসেন পরিনীতি। পরবর্তীতে অডিশনের মাধ্যমে বলিউডে পা রাখেন এবং তিনি ছবিতে কাজ করার চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

তবে আজ পরিনীতিতিকে নিয়ে আমাদের আলোচ্য বিষয় একটু অন্য। আমরা জানি যে অভিনেত্রীদের নিজের কর্মস্বার্থের জন্য নানারকম ফটোশ্যুট করতে হয়। সঙ্গে মডেলিং এও যথেষ্ট পটু তারা। তবে অভিনয়ের শুরুতেই পরিনীতি ছিল মিষ্টি-গুবলুগাবলু, তখনও কেউ জানত না এই মেয়েটিই একদিন ধামাক তৈরি করবেন! পরীনীতি দারুণ অভিনেত্রী তো বটেই, সঙ্গে দারুণ মডেল। এবার এক তুখড় ফটোশ্যুটের মাধ্যমে একেবারে তাঁর রূপ ও শরীরি উষ্ণতা দিয়ে ক্লিন বোল্ড করে দিলেন সকল নেটিজেনদের। সম্প্রতি বিনা পোশাকের অবতারে ছবি তুলে ঝড় তুললেন পরিনীতি।

ডাব্বু রতনানির ফোটোশ্যুটে নগ্ন অবস্থায় ধরা দিলেন এই সুন্দরী অভিনেত্রী। আমরা ভাবতেই পারি না যে একটি সাধারণ ঠেলা গাড়ির ভিতরে বসে কেউ ফটো তুলতে পারেন। এই ফটোশ্যুটে এমনটাই দেখা গেল পরিনীতিকে। একটি হলুদ হলুদ রঙের হাতে ঠেলা গাড়িতে ঢুকে বসে থাকতে দেখা গেলো অভিনেত্রীকে। তাঁর গায়ে পোশাকের একটি চিহ্ন মাত্র নেই। নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেল থেকেই ছবিটি শেয়ার করেন ডাব্বু রতনানি। ক্যাশনে লিখেছেন, ‘Hitch Your Wagon To A Star!’

উল্লেখ্য, পরিণীতি অভিনয়ে খুব দক্ষ। কিছুদিন আগেই মুক্তি পেয়েছে পরিনীতি অভিনীত সাইনা নেওলের বায়োপিক। ইতিমধ্যেই রমরমিযে চলছে সাইনার বায়োপিক। তবে প্রথমে তাপসী পান্নুকে এই চরিত্রের জন্য বাছা হলেও পরে সুযোগ পান পরিণীতি চোপড়া। পরিচালক হলেন অমল গুপ্তে। তবে প্রথম পোস্টার মুক্তি পাওয়ার পর নেটমাধ্যমে বিতর্কের ঝড় উঠেছিল এই সিনেমা নিয়ে। ট্রোল করা হয়েছিল সিনেমার নামভূমিকায় থাকা অভিনেত্রী পরিণীতিকেও। সেই পোস্টারে দেখা যাচ্ছিল, শাটল কককে আকাশে ছুড়ে সার্ভ করতে যাচ্ছেন এক ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়। এ ভাবে সার্ভ টেনিসে দেখা গেলেও ব্যাডমিন্টনে তা নিষিদ্ধ ছিল তাই ট্রোল করা হয়েছিল। তবে এই ছবির দ্বিতীয় পোস্টার লঞ্চ হওয়ার পরেই সব ধারণা ভেঙে গিয়েছিলো নেট জনতার।

Related Articles