বিনোদন

তৈরি হচ্ছে পার্ক, বসবে মূর্তি, প্রয়াত লতা মঙ্গেশকরকে শ্রদ্ধা জানাতে নয়া উদ্যোগ কলকাতা প্রশাসনের

লতা মাঙ্গেশকার (Lata Mangeshkar) একসময় প্রচুর বাংলা গান গেয়েছিলেন। যে কারণে বাংলা সিনেমায় তার অবদান অনস্বীকার্য। তাই এবার পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতে এক বিশেষ পদ্ধতি গ্রহন করেছে। সুর সম্রাজ্ঞী লতা মঙ্গেশকরের নামে কলকাতার বুকে তৈরি হবে একটি পার্ক। সেই পার্কের মধ্যেই বসতে চলেছে লতাজির একটি মূর্তিও।

এর আগে দ্বিজেন্দ্রলাল রায়, হেমন্ত মুখোপাধ্যায়, শচীন দেব বর্মন, আর.ডি বর্মন-কে স্মরণ করা হয়েছে। কলকাতার সাউদার্ন এভিনিউ-এর একটি অংশের নাম দেওয়া হয়েছে ‘সঙ্গীত সরনী’। যেখানে তাদের পূর্ণাঙ্গ মূর্তিও বসানো হয়েছে। পুরসভার ফেব্রুয়ারী মাসের অধিবেশনে লতা মঙ্গেশকরের নামের পার্ক তৈরির প্রস্তাব পাশ হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

এরই পাশাপাশি টাউন হলে সংগীতের ‘একাল-সেকাল’ নিয়ে সংগ্রহ শালা তৈরী করা হবে। মেয়র পরিষদ দেবাশিস কুমার জানিয়েছেন – ‘কলকাতা পুরসভার তত্ত্বাবধানে এখানে স্টাডি সেন্টার তৈরী করা হবে’। শুধু তাই নয়, জানা যাচ্ছে এই সম্পূর্ণ কাজটি বাস্তবায়িত করবে ও অত্যাধুনিক গবেষণা কেন্দ্র তৈরী করবে খড়্গপুর আই.আই.টি সংস্থা।

কলকাতা শহরকে সুন্দর ও পরিবেশবান্ধব তৈরী করতে প্রচুর প্রকল্প এনেছে কলকাতা পুরসভা। যে কারণে প্রায় ২৫০০০ গাছ লাগানো হয়েছে। এর পেছনে রয়েছে আরও এক বিশাল উদ্যেশ্য। বিজ্ঞানীদের কথায় – ধীরে ধীরে সমুদ্র গ্রাস করবে কলকাতা মহানগরীকে। তাই তিলোত্তমাকে বাঁচাতে তৎপর প্রশাসন।

কলকাতার সব ওয়ার্ডের সমস্যা খতিয়ে দেখার চেষ্টা করছে কলকাতা পুরসভা। পাশাপাশি ১০৮টি পুরসভার ভোট ২৭শে ফেব্রুয়ারী। যে কারণে শাসক দল কোনোভাবেই নিজেদের কাজে কোনো ধরণের ফাঁক রাখতে চাইছেন না। সবশেষে জানা যায়, লতা মাঙ্গেশকর-কে সম্মান জানাতে সেই পার্কের কাজ কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হবে।

Related Articles