বিনোদন

বাপ্পি লাহিড়ির শেষ যাত্রায় আসতে পারেন নি! অবশেষে মুখ খুললেন মিঠুন চক্রবর্তী

‘ডিস্কো কিং’ বাপ্পী লাহিড়ী (Bappi Lahiri) পাড়ি দিয়েছেন নক্ষত্রলোকে। এখনও অবধি মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty) ও বাপ্পী সমার্থক। বলা যায়, মিঠুন স্টারডম পেয়েছেন বাপ্পীর জন্য। একসময় যখন কোনো পরিচালক বা সুরকার মিঠুনের জন্য ঝুঁকি নিতে চাননি, সেই সময় বাপ্পী তৈরি করেছিলেন ‘ডিস্কো ডান্সার’-এর টাইটেল সঙ। এই ফিল্মটি মিঠুনের কেরিয়ারের মাইলস্টোন। এরপরেই ‘জিমি জিমি’ গানটি। এই গানটি ভারত ছাড়িয়ে রাশিয়া ও সমগ্র ইউরোপে বিখ্যাত হয়েছিল। হলিউডের ফিল্মেও ব্যবহার হয়েছিল এই গান। বাপ্পীর সাথেই মিঠুন হয়ে উঠেছিলেন আন্তর্জাতিক তারকা। কিন্তু বাপ্পীর মৃত্যুর পর তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতে কাজল (Kajol), তনুজা(Tanuja) সহ একাধিক বলিউড তারকা এলেও দেখা যায়নি মিঠুনকে। এমনকি সোশ্যাল মিডিয়াতেও মিঠুন কিছুই বলেননি। ফলে স্বাভাবিক ভাবেই তাঁকে নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। এবার মুখ খুললেন মিঠুন।


বাপ্পীর প্রয়াণের তিন দিন পর একটি সাক্ষাৎকারে আবেগপ্রবণ হয়ে মিঠুন জানান, বাপ্পীদা তাঁর নাচকে বুঝতেন। ভারতে প্রথম ডিস্কো ডান্সিং স্টাইল শুরু করেন মিঠুন। বাপ্পীর ডিস্কো গান ও মিঠুনের নাচ, দিয়ে মিলে জন্ম দিয়েছিল স্টারডমের। এখনও অবধি বলিউড অ্যানালিস্টরা মনে করেন, বাপ্পীর তৈরি মিউজিক মিঠুনকে বলিউডে কেরিয়ার তৈরি করতে সাহায্য করেছিল। একে অপরের পরিপূরক ছিলেন।

মিঠুন জানিয়েছেন, বাপ্পীদা খুব খোলা মনের মানুষ ছিলেন। এত বড় শিল্পী হয়েও তাঁর কোনো ইগো ছিল না। মিঠুন কোনো গান শুনে বাপ্পীকে যদি বলতেন এই ধরনের গান বানাতে, বাপ্পীও মন দিয়ে গানটি শুনতেন। তাঁর গানে থাকত সেই ছোঁয়া। এই ধরনের কথা অন্য কোনো সঙ্গীত পরিচালককে বলার সাহস করে উঠতে পারেননি মিঠুন। কিন্তু বাপ্পীর শেষ যাত্রায় থাকতে পারেননি মিঠুন।

সেই সময় তিনি ছিলেন ব্যাঙ্গালোরে। তাছাড়া মিঠুন বাপ্পীকে এভাবে দেখতে চাননি। তিনি সারাজীবন ‘ডিস্কো কিং’-কে যেভাবে দেখেছেন, সেই ছবিই নিজের মনে ধরে রাখতে চান। করোনা অতিমারীতে পিতৃহারা মিঠুন তাঁর বাবার শেষ যাত্রাতেও সঙ্গী হননি। কারণ বাবার চেনা চেহারাটাই তিনি স্মৃতিতে ধরে রাখতে চেয়েছিলেন।

Related Articles