সোশ্যাল মিডিয়ায় কুরুচিকর আক্রমণ, চুপ না থেকে যোগ্য জবাব দিলেন অভিনেত্রী মিশমি

Mishmee Das

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে মানুষের চিন্তা ভাবনা, কাজ, উন্নতি, অবনতির পরিধি যেমন বেড়েছে, তেমনই বেড়েছে পর নিন্দা পর চর্চা, ইংরেজিতে ছোট্ট করে যাকে বলে PNPC। এবারে এই pnpc র আওতায় এলেন ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’ ধারাবাহিকের খল নায়িকা মিশমি দাস ( Mishmee Das)।

একটা লম্বা বিরতির পর কাজের জগতে ফিরেছেন মিশমি। গল্পে রিনি চরিত্রের জন্য বেশ প্রশংসিত তিনি। অনেকের চক্ষুশূল হয়ে উঠেছেন অভিনয়ের মধ্যে দিয়ে, এবং এর মধ্যে দিয়েই তিনি কাজের সার্থকতা খুঁজে পান। সম্প্রতি, অভিনেত্রী তার বেশ কিছু বোল্ড ছবি আপলোড করে চলেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায় যা কিছু দর্শক একেবারেই নিতে পারছেন না। আসলে যারা ধারাবাহিক দেখেন তাদের বেশিরভাগই হলেন মহিলা এবং গৃহকর্মী। যারা নিয়মিত অফিসে যান বা টাইট সিডিউলের মধ্যে দিন কাটান তাদের কাছে ধারাবাহিকের চরিত্র চেনা জানা না হলেও, যারা নিয়মিত ধারাবাহিক দেখেন তাদের কাছে চরিত্রগুলো ভীষণ জীবন্ত। তাই সমালোচনার মুখে পড়া খুবই সহজ।

সম্প্রতি কয়েকজন অভিনেত্রীকে ব্যাক্তিগত আক্রমণ করেন অত্যন্ত কুৎসিত শব্দে। মিশমি অবশ্য সেই কমেন্টের স্ক্রিন শট তুলে নিজেই পোস্ট করেন এবং কড়া প্রতিক্রিয়া দেন। রিণিতা চৌধুরী নামে এক মহিলা লেখেন, ‘অনস্ক্রিনের স্বভাব অফস্ক্রিনেও গেল না’। সেই কমেন্টের উত্তরে অর্চিতা আটা বলে একজন লেখেন, ‘সেই তো ড্রেসটা দেখ, পুরো রেড লাইট এলাকার মেয়ে লাগছে’।

আর সামলাতে পারেননি অভিনেত্রী। তিনি উত্তরে লেখেন, ‘হ্যাঁ, আমি পর্দায় নেতিবাচক চরিত্র করি, রিনি চরিত্রটা অসহ্যকর, তাই হওয়ার কথা। যখন এটা আমাকে কেউ বলে আমি দুঃখ পাই না, উলটে ভাবি আমি হয়তো চরিত্রটা জাস্টিফাই করতে পারছি। গল্পের জন্য, চরিত্রটা চিত্রনাট্য অনুযায়ী ফুটিয়ে তোলবার জন্য আমাকে কিছু পোশক এবং মেক-আপ করতে হয়। সেটা সবার সবারমতো করে ভালো-খারাপ লাগতেই পারে। কিন্তু এর জন্য আমাকে ব্যক্তিগতভাবে আক্রমণ করে আপনারা আপনাদের লালন-পালন এবং শিক্ষার পরিচয় দিচ্ছেন সোশ্যাল মিডিয়াতে। আমার কিন্তু ছিঁটেফোঁটাও ক্ষতি হচ্ছে না। বাস্তব আর সিরিয়ালের মধ্যেকার পার্থক্যটা বুঝতে শিখুন। আর স্মার্টফোন আছে মানেই যা ইচ্ছে তাই লিখবেন না। আমরা পর্দায় অভিনয় করি, কিন্তু আমরাও মানুষ’।