বহু পতিক্ষার পর বড় পর্দায় ফিরছেন অভিনেত্রী মনামী ঘোষ

Belashuru

বসিরহাটের মিষ্টি মেয়ে মনামী এখন টলি পাড়ার বিশেষ আবেদনময়ী, সুন্দরী অভিনেত্রী। তার রূপের জাদুতে চক্ষু চড়কগাছ হওয়ার জোগাড়। বোঝাই যায় না তার বয়স, দেখলেই মনে হয় তিনি বুঝি ২৫ এর আশেপাশে ঘুরছেন। বয়সের পাশাপাশি তার কেরিয়ারের পথও সুদূরপ্রসারী। বহুদিন ধরে সিনে জগতের সঙ্গে লেগে রয়েছেন। একাধিক ধারাবাহিকে কাজ করেছেন। এছাড়াও বিভিন্ন ওয়েব সিরিজ ও সিনেমায় তাকে দেখা গিয়েছে। এবার বেলাশুরুর মুখোমুখি মনামী।

Belashuru

পিউ-পলাশের মিষ্টি রসায়ন দেখার জন্য আর মাত্র হাতে কয়েক দিন বাকি। যারা আধুনিক সময়ের সিনেমা দেখতে পছন্দ করেন তারা শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এবং নন্দিতা রায় পরিচালিত এবং প্রযোজিত বাংলা ছবি দেখার জন্য মুখিয়ে থাকেন, এবার দেখার পালা ‘বেলাশুরু’র। ২০১৫ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘বেলাশেষে’। এবারে আসতে চলেছে ‘বেলাশুরু’। এই সিনেমাতেই দেখা যাবে মনামী ঘোষকে।

হাতে মাত্র আর কয়েকটা দিন। আগামী ২০ মে সাড়ম্বরে মুক্তি পেতে চলছে ‘বেলাশুরু’। এই গল্পে মনামীর চরিত্রের নাম পিউ। মজুমদার পরিবারের ছোট মেয়ে, পিউ। প্রায় বহুদিন পর বড় পর্দায় দেখা যাচ্ছে মনামী ঘোষকে। এই কাজ প্রসঙ্গেও সামান্য আফসোস রেখেছেন অভিনেত্রী।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Monami Ghosh (@monami_ghosh)

মনামী’র কথায়, বহুদিন ধারাবাহিকে কাজ করেছেন। মুম্বাই থেকে কাজের ডাক আসে, কিন্তু যাওয়া হয়নি। ধারাবাহিকের কাজ করার পর আর সময় বের করতে পারেননি, তাই জাতীয় স্তরে পরিচিতি সেভাবে গড়ে ওঠেনি। মনামী’র কথায়, “ছবিতে নায়িকা হয়ে শুধু নাচ-গান করব না। সেগুলি এখন আলাদা ভাবে করার অনেক সুযোগ আছে। যদি ‘হাঙ্গার গেমস’ বা ‘সাদমা’র মতো কোনও ছবি পাই, খুব ভালো লাগবে। মুখ্য চরিত্র থেকেও ছক ভাঙতে পারব।”