×
বিনোদন

ঢিলে অন্তর্বাস ও কপালে পোড়া দাগ নিয়েই, ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ মঞ্চে উঠেছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

Advertisements
Advertisements

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, ২০০০ সালে তিনি মিস ওয়ার্ল্ড উপাধি লাভ করেন। এখন তিনি নিক ঘরনী। বিদেশের মাটিতে তার বাস। নিজের জীবন নিয়ে বরাবর খোলামেলা তিনি। সম্প্রতি তিনি তার আত্মজীবনী প্রকাশ করেছেন বইয়ের আকারে। নাম রেখেছেন unfinished…. অর্থাৎ অসমাপ্ত। শৈশব থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত যেই যেই পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন তার সবটাই তুলে ধরেছেন সেই বইতে।

Advertisements

এবারের গল্প অন্যরকম। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে প্রিয়াঙ্কা তার মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার কিছু রোমাঞ্চকর কাহিনী তুলে ধরেন। ২০০০ সালে চলছে মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতা। প্রিয়াঙ্কা তৈরি হচ্ছেন গ্রীন রুমে। প্রায় ৯০ জন প্রতিযোগী সেখানে। হুলুস্থুল কাণ্ড এক্কেবারে। তখন প্রিয়াঙ্কা তার ‘হেয়ার কার্লার’ নিয়ে চুল কোঁকড়াচ্ছেন। এমন সময়ে কোনও এক প্রতিযোগী প্রিয়ঙ্কাকে অনিচ্ছাকৃত ভাবে ধাক্কা দিয়ে ফেলেন। হাত ফসকে যায় তাঁর। হাতে ছিল গরম ‘হেয়ার কার্লার’। কপালের বা দিকের কিছুটা অংশ সামান্য পুড়ে যায়। পোড়ার দাগ হয়ে যায় সেখানে। যদিও সেই তাড়াহুড়োর মুহূর্তে মেক আপ লাগিয়ে কোনো রকমে স্টেজে ওঠেন।

স্টেজে উঠেও বিপত্তি। যখন নাম নেওয়া হল তখন প্রিয়াঙ্কা তার স্বপ্ন পূরণ করে ফেলেন। খুশিতে আনন্দে প্রিয়াঙ্কার চোখে জল আসে, কিন্তু মাথায় একটা চিন্তাও ঘুরছিল। প্রিয়াঙ্কার ড্রেসের উপরের অংশের ফিতে হালকা হয়ে যায়। বেগতিক দেখে বুকের কাছে হাত রেখেই ঘোরেন। পুরো মঞ্চ জুড়ে নমস্তে নমস্তে করে বুকের কাছে হাত রেখেই স্টেজে পরিক্রমা করেন।

‘PEOPLE in 10’ নামে একটি ডিজিটাল শোতে এসে প্রিয়াঙ্কা নিজের মুখেই সেই অভিজ্ঞতার কথা জানান। প্রিয়াঙ্কার কথায়, “The whole time while I was doing my walk or whatever when I won, I kept my hands like this in a namaste, which people thought was a namaste but actually was holding my dress up. So uncomfortable!” অর্থাৎ, যতক্ষণ তিনি হাঁটছিলেন ততক্ষণ তিনি বুকের কাছে হাত রেখেই দিয়েছিলেন। একটু অসাবধান হলেই বিপত্তি ঘটতে পারে। দেখুন ভিডিও।।।।।।।।

Advertisements