Thursday, January 20, 2022

খাবার ওয়ালার ছেলে থেকে টলিউডের সুপারস্টার, বলিউড সিনেমার গল্পকেও হার মানাবে দেব- এর জীবন কাহিনী

২০০৬ সালে অভিনয় জগতে প্রবেশ করেছিলেন দেব (Dev)। কেটে গেছে এক যুগেরও বেশি সময়। প্রথমদিকে তাঁকে নিয়ে নিয়মিত ট্রোলিং করা হলেও আস্তে আস্তে নিজের কাজ ও অভিনয় দক্ষতা তিনি বারংবার প্রমাণ করে দিয়েছেন। বর্তমানে বাংলা চলচ্চিত্র জগতে দেব নিঃসন্দেহে এক নম্বর।সিনেমায় অভিনয় করার পরিকল্পনা নাকি তাঁর কোনো দিনই ছিল না। মুম্বাই গিয়ে এক সময় তিনি আব্বাস-মস্তানের ‘টারজান: দ্য ওয়ান্ডার কার’ সিনেমায় সহকারী হিসেবে কাজ করেছিলেন। যশ, খ্যাতি, প্রশংসা- সেসবের চাহিদা তাঁর কোনোকালেই সেভাবে ছিল না। তিনি শুধুমাত্র নিয়মিত কাজ করতে চেয়েছিলেন।

বাবা গুরুপদ অধিকারীকে ব্যবসার কাজে তিনি একসময় সাহায্য করতেন। প্রয়োজন অনুযায়ী বাসন ধোয়া থেকে খাবার পরিবেশন, সবই তিনি করেছেন। কিন্তু অতীতের সেইসব কথা আর ভাবতে চান না দেব।দেবের মতে, “আমি পিছন ফিরে তাকাতে চাই না। সামনে এত কাজ। আমি যদি পিছনে তাকাতে গিয়ে সময় নষ্ট করি, অতীতে ভেসে গিয়ে যদি গর্ববোধ চলে আসে, অহংকার চলে আসে!”

এই প্রসঙ্গে অভিনেতার আরো সংযোজন, “খাবারওয়ালার ছেলে হিরো হয়ে গেল, এই ভাবনাটা মাথায় নিতে চাই না। এই যাত্রাটা সম্পূর্ণ করার দায়িত্ব আমার। আমি মনে করি, আমার পথ চলা সবে শুরু হয়েছে। অনেকটা পথ এগিয়ে যেতে হবে। এখন পিছনে তাকালে সময় নষ্ট হবে। এগিয়ে যেতে পারব না।”সাফল্য ও ব্যর্থতার সমানভাবে মুখোমুখি হয়েছেন তিনি। অভিনেতা হিসেবে শুধুমাত্র নিজের কাজ থামিয়ে রাখেননি, খুলেছেন নিজের প্রোডাকশন হাউসও। বিভিন্ন সিনেমা নিজেই প্রযোজনা করেছেন‌। একধারে অভিনেতা ও প্রযোজক, অপরদিকে সাংসদ হিসেবে সমানতালে কাজ করে চলেছেন দেব। তবে শোনা যাচ্ছে, তিনি এবার ভোটের ময়দান থেকে সরে দাঁড়াতে পারেন।

⚡ Trending News

আরও পড়ুন