বিনোদন

ফাঁস হয়ে গেল দুই বাংলার হার্টথ্রব জয়া আহসানের ব্যাক্তিগত জীবনের রহস্য

‘ইস্টবেঙ্গল’ (East Bengal) ‘মোহনবাগান’ (Mohan Bagan) ম্যাচে দুই বাংলা বিভক্ত হলেও বরাবরই দুই বাংলার টান রয়েছে। আসলে হবে নাই বা কেন, একটা সময় তো এ রাজ্যের মধ্যেই ছিল বর্তমানের বাংলাদেশ বা পূর্ববঙ্গ। সেই কারণে একে অপরের দুর্দিনে বারবারই বাড়িয়ে দিয়েছে সাহায্যের হাত। সংস্কৃতির দিক দিয়েও যথেষ্ট মিল রয়েছে দুই বাংলার। আর দুই বাংলার মেলবন্ধনের প্রধান সেতু হল চলচ্চিত্র।

চলচ্চিত্রের দিক দিয়ে বরাবরই এক হয়েছে দুই বাংলা। আর এই মেলবন্ধনকে আরও একটু মজবুত করেছেন ‘জয়া আহসান’-র (Jaya Ahsan) মতো অভিনেত্রীরা। বাংলাদেশের এই সুন্দরী বারবার মন কেড়েছে পুরুষদের। তার মধ্যে রয়েছে তরুণ প্রজন্মও। যেমন সুন্দর মুখ, ঠিক তেমনই সুন্দর তাঁর অভিনয়। তাঁর অভিনয় দক্ষতায় মজেছে বাঙালি। বয়স গিয়ে দাঁড়িয়েছ ৫০-এর দোরগোড়ায়। কিন্তু তাতেও সৌন্দর্যে খামতি নেই একটুও। বরং দিন দিন আরও সুন্দরী হয়ে উঠছেন বাঙালি এই অভিনেত্রী। অনেকে আবার বলেন, ‘জয়া আহসান’ (Jaya Ahsan) যদি বলিউডে যেতেন তাহলে অনেকেরই অভিনেত্রী হওয়া হতো না।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Jaya Ahsan (@jaya.ahsan)


এপার বাংলার ‘কণ্ঠ’ (Kantha) হোক বা ‘এক যে ছিল রাজা’-র (Ek Je Chilo Raja) মতো সিনেমায় ‘জয়া’-র (Jaya) অভিনয় নজর কেড়েছে সকলের। তাঁর ভক্তদের মধ্যে অনেকেরই মনে প্রশ্ন জাগে, তিনি কি আদৌ সিঙ্গেল? নাকি অন্য কোন রহস্য আছে। জানা গিয়েছে ১৯৯৮ সালে বিয়ে করেছিলেন ‘জয়া আহসান’(Jaya Ahsan)। একটি কন্যা সন্তান রয়েছে তাঁর। বাংলাদেশের এক জমিদার বাড়ির সন্তান ‘ফয়সাল মাসুদ’-র (Faisal Masood) সাথে বৈবাহিক বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন এই সুন্দরী। অভিনয়ের সুত্রেই আলাপ দুজনের। তারপরে প্রেম পূর্ণতা পাই বিয়েছে। কিন্তু বেশিদিন টেকেনি তাঁদের সম্পর্ক। ২০১১ সালে তাঁদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। কিন্তু তাতেও নিজের ফ্যানদের কাছে ক্রাশ এই অভিনেত্রী। সোশ্যাল মিডিয়াতে নিজের চকচকে চেহারার ছবি পোস্ট করেন মাঝে মধ্যেই। কিছুক্ষণের মধ্যেই লাইক, কমেন্টে ভরে যায় তাঁর সোশ্যাল মিডিয়ার কমেন্ট বক্স।

Related Articles