নিউজবিনোদন

করোনার দাপটে “দ্য কপিল শর্মা শো” তে আরআরআর মুভি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ ছবি নির্মাতাদের!

দেশে ফের কোভিড পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। ফের করোনা বৃদ্ধি ঘটায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সিনেমাহল সম্পূর্ণ বন্ধ কিংবা ৫০ শতাংশ দর্শক নিয়ে খোলা থাকার ঘোষণা করা হয়েছে। একদিকে যেমন দিল্লির সরকার অনির্দিষ্টকালের জন্য সিনেমাহল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তেমনই পশ্চিমবঙ্গ সহ বহু রাজ্যে ৫০ শতাংশ দর্শক নিয়ে সিনেমাহল খোলার নির্দেশ জারি হয়েছে। তবে কোভিড পরিস্থিতিতে ফের বলিউডের বেশ কিছু সিনেমা মুক্তি প্রেক্ষাগৃহে স্থগিত হয়েছে। স্থগিত হয়েছে শাহিদ কপূরের ‘জার্সি’ ছবির মুক্তি। স্থগিত হয়েছে পরিচালক রাজামৌলির বহু প্রতীক্ষিত ছবি ‘আরআরআর’-এর (RRR) মুক্তি।

এনটিআর জুনিয়র, রাম চরণ, আলিয়া ভট্ট, অজয় দেবগন অভিনীত বলিউডের বিগ বাজেটের ছবি ‘আরআরআর’ মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল আগামী ৭ জানুয়ারি। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে এই ছবির মুক্তি স্থগিতের ঘোষণা করেছেন ছবির নির্মাতারা। পরিচালক রাজামৌলির ‘আরআরআর’ ছবির মুক্তির দিন সামনে এসে যাওয়ায় ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছিল প্রোমোশনের কাজ। কিন্তু প্রোমোশনের জন্য ইতিমধ্যেই বেশ অনেক টাকা খরচ করে ফেলেছেন নির্মাতারা। কিন্তু আচমকা ছবির মুক্তি স্থগিত হয়ে যাওয়ায় কয়েক কোটি টাকার ক্ষতি হল ‘আরআরআর’ ছবির নির্মাতাদের।

বলিউড সূত্রের খবর, এই নতুন ছবির প্রোমোশনের জন্য ইতিমধ্যেই ১৮ থেকে ২০ কোটি টাকা খরচ করে ফেলেছেন ছবির নির্মাতারা। আর ছবি স্থগিত হওয়াতে বিপুল পরিমাণ টাকার ক্ষতি হল নির্মাতাদের। মুম্বইয়ের এক সংবাদমাধ্যম থেকে জানা গিয়েছে, রাম চরণ এবং জুনিয়র এনটিআরের অনুরাগীদের অন্ধ্রপ্রদেশের বাইরে এই সিনেমার বিভিন্ন প্রচারের অনুষ্ঠানের জন্য শুধু খরচ করা হয়েছে ২-৩ কোটি টাকা। সম্প্রতি ‘বিগ বস’, ‘দ্য কপিল শর্মা শো’-এর মতো একাধিক অনুষ্ঠানে প্রচারের জন্য এসেছিলেন ‘আরআরআর’-এর তারকারা।

এই সিনেমার অন্যতম দুই অভিনেতা রাম চরণ এবং জুনিয়র এনটিআর মূলত দক্ষিণী ছবিতে অভিনয় করেন। দেশের সব শহরে এই দুই দক্ষিণী অভিনেতার জনপ্রিয়তা নাও থাকতে পারে বলে মনে করেন নির্মাতারা। তাই ছবির আর দুই অভিনেতার প্রচারের সময় তাঁদের অসংখ্য অনুরাগীদের নাকি নিয়ে গিয়েছিলেন অনুগামীরক। সেই অনুরাগীদের কাজ ছিল এই দুই দক্ষিণী তারকার জন্য গলা ফাটানো এবং হাততালি দেওয়া। আর এই কাজের জন্য বিলাসবহুল হোটেলের যত্ন-আত্তি পেয়েছিলেন দুই স্টারের অনুগামীরা ত

তবে শেষে এসে তরী ডুবলো। এই ছবির মুক্তি স্থগিত থাকার ফলে এত প্রচার সবই বৃথা। সূত্রের খবর, পরিচালক-প্রযোজকদের মতোই হতাশ হয়েছে দক্ষিণী স্টার রাম চরণ এবং জুনিয়র এনটিআর। জানা যাচ্ছে, মনের দুঃখে কারও সঙ্গে দেখা পর্যন্ত করছেন না দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির এই দুই তারকা। তাঁদের ঘনিষ্ঠ এক ব্যক্তি সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, “সারা দেশ জুড়ে জনপ্রিয়তা পেতে চলেছিল ওরা। ওদের হতাশ বললেও কম বলা হবে। বরং ওরা অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছে।”

Related Articles