২৫-এ পা দিলেন নোয়া, বিছানা ভর্তি উপহারের ছবি শেয়ার শ্রুতির, শুভেচ্ছায় ভরালেন অনুগামীরা

Bengali Serial Actress

জি বাংলা খ্যাত ‘ত্রিনয়নী’ ধারাবাহিক দিয়েই অভিনয় জগতে পা রাখেন শ্রুতি (Shruti Das)। সেই শ্যামলা বর্ণের মেয়েটি, সোশ্যাল মিডিয়ায় কাজের মাসির তকমা দেওয়া মেয়েটি আজ একজন পপুলার অভিনেত্রী। ভবিষ্যত দেখতে পাওয়ার গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছিল ত্রিনয়নী গল্পটি। প্রথম ধারাবাহিকেই (Serial) বাজিমাত করে ফেলেছিলেন শ্রুতি। এখন সে স্টার জলসার দেশের মাটির অভিনেত্রী। সেখানেও তাঁর নোযা চরিত্রের অভিনয় বেশ মনমতন হয়েছে দর্শকদের।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Shruti Das (@shrutidas_real)

অভিনয়ের পাশাপাশি ঘুরতে যাওয়া, পার্টি, বিশেষ বন্ধুর সঙ্গে একান্তে সময় কাটানো সবটাই করছেন নায়িকা একেবারে একা হাতে। কয়েকদিন আগেই গিয়েছে তাঁর বয়ফ্রেন্ড স্বর্নেন্দু সমাদ্দার (Swarnendu Samaddar)-এর জন্মদিন, যেখানে তিনি সকলকে নিয়েই তাঁর ভালোবাসার মানুষের জন্যে সারপ্রাইজ সাজিয়েছিলেন। এবার শ্রুতির পালা। মিষ্টি মেয়ে শ্রুতি এবারে পঁচিশে পা দিলেন। জন্মদিন মানেই যে উপহার, বেলুন, কেক, মিষ্টি, বন্ধু সমাগম তা আলাদা করে বলার উপায় নেই! ঠিক সেরকমই জন্মদিনের দিন শ্রুতির খাট সেজে উঠল নানান উপহার, বেলুনে। সঙ্গে ছিল কেক, টেডি বিয়ার এবং একটি সোনার আংটি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Shruti Das (@shrutidas_real)

এদিন অভিনেত্রী নিজেই তার জন্মদিনের (Birthday) একগুচ্ছ ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায়শেয়ার করে জানালেন তিনি কিভাবে জন্মদিন সেলিব্রশন করলেন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে শুভেচ্ছায ভরিয়ে দিলেন তাঁর অনুরাগীরা। শ্রুতি ফর্সা নন, অপরূপ সুন্দরী যে তাও বলা যাবে না! তবে তিনি মিষ্টি, সুন্দর, রূপবতী এবং তিনি কৃষ্ণবর্ণা। সঙ্গে তাঁর এক ঢাল কোমর পর্যন্ত কেশ। যা বর্তমানে খুব কম মেয়েদের দেখা যায়, সঙ্গে রয়েছে তাঁর মায়াবী চোখ। তবে এই গায়ের রঙের জন্য অনেক কুৎসিত কথা সহ্য করতে হয় শ্রুতিকে। কিন্তু বরাবরই উচিত জবাব দিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন শ্রুতি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Shruti Das (@shrutidas_real)

চোখে প্রচুর স্বপ্ন নিয়ে কাটোয়া থেকে কলকাতায় এসেছিলেন অভিনেত্রী শ্রুতি দাস (Shruti Das)।তবে পড়াশোনাটাই তাঁর লক্ষ্য হলেও তাঁর স্বপ্ন ছিল মডেলিংযের প্রতি। বিশেষত তার জন্যই তিনি কলকাতায় এসেছিলেন। কিন্তু ভাগ্য যে তাঁকে খুব তাড়াতাড়ি সুযোগ দিয়ে দেবে সেটা কে জানত! এক্কেবারে প্রথম অডিশনেই মিলে গিয়েছিল শ্রুতির অভিনয়ের সুযোগ। তাও আবার মুখ্য চরিত্রে। ব্যস! অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই এক্কেবারে দক্ষ অভিনয়ের সঙ্গে জয় করে নিলেন তিনি সকল দর্শকের মন।