প্রথম দেখাতেই প্রেমে পড়েন রচনা ! দিদি নম্বর ১ এর মঞ্চে প্রকাশ্যে এলো বাবুল সুপ্রিয়র প্রেম কাহিনী, দেখুন ভিডিও

Babul Supriyo

বিখ্যাত গায়ক বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo) আপাতত রাজনীতির ময়দানে সক্রিয়। দীর্ঘদিন বিজেপিতে যুক্ত থাকার পর তিনি সদ্য তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছেন। এই ঘটনা নিয়ে বিভিন্ন সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে তাঁকে। এসবের পাশাপাশি নতুন দলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে সাদর অভ্যর্থনা জানিয়েছেন।

এবার বাবুলকে দেখা গেল জি বাংলার জনপ্রিয় গেম শো ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’- এর মঞ্চে। অবশ্য একা নন, তিনি তাঁর স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে এসেছিলেন। বিভিন্ন কথার মাধ্যমে উঠে এলো বাবুল ও তাঁর স্ত্রীয়ের সম্পর্কের সূত্রপাতের গল্প।

‘দিদি নাম্বার ওয়ান’- এর সঞ্চালকের ভূমিকায় রয়েছেন রচনা ব্যানার্জী। মজার ব্যাপার হলো বাবুলের স্ত্রীয়ের নামও রচনা, পুরো নাম রচনা শর্মা সুপ্রিয়। তিনি পেশায় একজন বিমানসেবিকা ছিলেন। এক বিমানযাত্রার সময়েই বাবুলের সঙ্গে তাঁর প্রথম দেখা হয়েছিল। বাবুলের কথায়,”বেল বাজিয়ে কফি চাইলাম। প্রথমবার কফি আনল অন্য কেউ। তারপর আবার কফি চাইলাম, তখন ও এল। একটা কাগজ আর পেন এগিয়ে দিয়ে বললাম, ‘গিভ মি ইয়োর ফোন নম্বর’। ও একটা নম্বর লিখে দিল। ওটা কেটে দিয়ে আমি আবার কাগজ এগিয়ে দিয়ে বললাম, ‘এবার তোমার সত্যিকারের নম্বর দাও।’ ব্যাস ওতেই পটে গেল। যদিও তারপর রোজ সকালে উঠে হোয়াটসঅ্যাপে গান লিখে পাঠাতাম।”বাবুলের স্ত্রী রচনা জানালেন বাবুল বাইরে যেখানেই যান সেখানেই স্ত্রী ও মেয়েকে সঙ্গে করে নিয়ে যান। পাশাপাশি বাবুল আরো জানালেন তিনি নাকি কথায় কথায় ভীষণ রেগে যান অর্থাৎ এক কথায় বদরাগী। তাই তিনি রচনাকে বলেই রেখেছেন তাঁর রাগ দেখানোর সময় যেন রচনা রাগ না দেখান। পরবর্তীতে রাগ ঠান্ডা হলে গান শুনিয়ে তিনি রচনাকে মানিয়ে নেন। এত বছর পরেও স্ত্রীর প্রতি সমানভাবে যত্নশীল বাবুল, এখনও প্রতিবার বাড়ি থেকে বেরোনোর আগে স্ত্রীর কপালে তিনিই টিপ পরিয়ে দিয়ে থাকেন। শোয়ের মঞ্চে সঞ্চালিকা রচনার কথায় নিজের স্ত্রী রচনার জন্য বাবুল ‘ইয়ে নয়না, ইয়ে কাজল’ গান গেয়ে দর্শকদের মুগ্ধ করেছিলেন, আর স্ত্রীয়ের উদ্দেশ্যে বললেন “রচনি, তুম মেরি সুন্দরী।”