কাজ দেওয়ার নাম করে সোহেল সাহা’র বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ, গ্রেফতার পায়েল সরকারের স্বামী

Got arrest

কথায় আছে, যেমন দেবা, তেমনই দেবী। কয়েকদিন আগেই মডেল-অভিনেত্রী পায়েল মিঠাই সরকার (Payel Mithai Sarkar)-এর অর্ধনগ্ন ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর সমালোচিত হয়েছিল। লতা মঙ্গেশকর (Lata Mangeshkar)-এর গানের সাথে অর্ধনগ্ন হয়ে নেচেছিলেন পায়েল। উর্ধ্বাঙ্গে ছিল না কোনো পোশাক। এবার পায়েলের স্বামী সোহেল সাহা (Sohail Saha)-র বিরুদ্ধে উঠল আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ।

গত এপ্রিল মাসে বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানায় সায়ন দাস (Sayan Das) নামে এক ব্যক্তি সোহেলের বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেন। তিনি জানান, একটি বেসরকারী সংস্থায় চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন সোহেল। এমনকি সোহেল ওই ব্যক্তির বিশ্বাস জেতার জন্য নিজেকে পায়েলের স্বামী বলেও পরিচয় দেন। তাঁর কথায় বিশ্বাস করে ইন্টারভিউ দিতে রাজি হয়ে যান সায়ন। কিন্তু কয়েক দফায় ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি পাননি তিনি। এরপর সোহেল তাঁকে জানান, সংরক্ষিত কোটায় চাকরি পাওয়ার জন্য তাঁকে এক লক্ষ চল্লিশ হাজার টাকা দিতে হবে। সোহেলের অ্যাকাউন্টে সেই টাকা পাঠিয়ে দেওয়ার কয়েকদিন পর একটি সন্দেহজনক ই-মেল আইডি থেকে তাঁর কাছে মেল আসে। ওই মেলে সায়নকে চাকরিতে যোগ দেওয়ার জন্য বলা হয়েছিল।

কিন্তু সায়নের এই মেলের সত্যতা নিয়ে সন্দেহ হওয়ায় তিনি বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। সায়ন অভিযোগ করেছেন, ই-মেলটি ওই বেসরকারী সংস্থার ডোমেইন থেকে আসেনি। সায়নের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ। এরপরেই পুলিশের হাতে আসা তথ্য অনুযায়ী জানা যায়, সোহেল কোনো বেসরকারী সংস্থায় চাকরি করেন না। এমনকি যে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সায়ন টাকা পাঠিয়েছিলেন, সেই অ্যাকাউন্টটি সোহেলের বাবার।

এরপর মঙ্গলবার রাতে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন সোহেল। পুলিশের সন্দেহ, এই প্রতারণা চক্রের সাথেও জড়িত আছে এক বা একাধিক ব্যক্তি। এই মুহূর্তে সেই ব্যাপারে সোহেলকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।