বিনোদন

‘ইন্ডাস্ট্রির একজন এসেছে আমার জীবনে’, ভালোবাসার মানুষকে নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুললেন ‘শ্রীময়ী’র দিঠি

ছোটপর্দায় শিশুশিল্পী হিসেবে প্রবেশ করেছিলেন অভিনেত্রী ঐশী ভট্টাচার্য্য (Aishi Bhattacharya)। বিভিন্ন ধারাবাহিকে একের পর এক কাজ করেছেন তিনি। গত ২ বছর ধরে স্টার জলসার জনপ্রিয় ‘শ্রীময়ী’-তে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র ‘দিঠি’-র ভূমিকায় একটানা কাজ করেছেন তিনি। আপাতত এই ধরনের চরিত্রে অভিনয় থেকে ঐশী বিরতি গ্রহণ করেছেন।

সংবাদ মাধ্যমকে ঐশী জানিয়েছেন,”আপাতত ভাল কাজের অপেক্ষা করছি। ‘ডানা’ বলে একটি ওয়েব সিরিজের কাজ করছি। একটা শিডিউল শেষ হল। দ্বিতীয় শিডিউল আবার শুরু হবে। এর পর মনের মতো চরিত্রের প্রস্তাব এলে কাজ শুরু করব আবার।”

বর্তমানে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় নাটক নিয়ে পড়াশোনা করছেন ঐশী। ছোটপর্দায় আপাতত তিনি ফিরতে চান না, বেশ কিছু কাজের প্রস্তাব তিনি ইতিমধ্যেই খারিজ করেছেন। এই প্রসঙ্গে তাঁর বক্তব্য,”আসলে ‘দিঠি’ চরিত্রটি করার পর ওই চরিত্রগুলি নিজের জন্য ঠিক মনে হয়নি। আগামী পাঁচ বছরে আমি যা কাজ করব বা যে সাফল্য পাব, তাতে এই চরিত্রের অবদান থাকবে। দিঠির সঙ্গে আমি একাত্মবোধ করি খুব। তাই আপাতত ওই চরিত্রের ছবি, ভিডিয়ো থেকে নিজেকে দূরে রাখি। কারণ আমার মধ্যে এখনও দিঠির ছাপ রয়ে গিয়েছে।”

‘শ্রীময়ী’ শেষ হয়ে গেলেও সহঅভিনেতা-অভিনেত্রীদের মধ্যে এখন‌ও সুসম্পর্ক বজায় রয়েছে। প্রত্যেকদিন শ্যুটিংয়ের মাঝে আড্ডা দেওয়ার সুযোগ না থাকলেও ফোনের মাধ্যমে নিজেদের মধ্যে তাঁরা যোগাযোগ রেখেছেন। ঐশী জানিয়েছেন,”এত দিন একসঙ্গে কাজ করে আমরা একটা পরিবার হয়ে উঠেছিলাম। সবার কথাই খুব মনে পড়ে। রুশাদি (চট্টোপাধ্যায়), ঊষসীদি (চক্রবর্তী)-র সঙ্গে আড্ডা দেওয়ার প্ল্যান করে ফেলেছি। খুব শিগগির হয়তো ইনস্টাগ্রামে আমাদের একসঙ্গে ছবি দেখা যাবে।”

সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশ জনপ্রিয় ঐশী। ইনস্টাগ্রামে তাঁর ফলোয়ার্স সংখ্যা প্রায় ৫০ হাজারের কাছাকাছি, বেশ কিছু ফ্যান পেজ‌ও রয়েছছ তাঁর। অতীতের তুলনায় বর্তমানে অভিনেতা-অভিনেত্রীরা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ভক্তদের কাছে বেশি মাত্রায় ধরা দিয়ে থাকেন।

ভার্চুয়াল জগতের জনপ্রিয়তা কাজের ক্ষেত্রে বা ইন্ডাস্ট্রিতে কাউকে অগ্রগণ্য হিসেবে পেশ করতে পারে কি না জিজ্ঞেস করা হলে ঐশী উত্তরে বলেন,”একজন অভিনেতা ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামের সাহায্যের মানুষের কাছে পৌঁছে যেতে পারেন। আগে একটা ধারাবাহিক শেষ হওয়ার পর সেই অভিনেতাকে টেলিভিশনে না দেখতে পেলে মানুষ তাঁকে ভুলে যেতেন। এখন সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে সেই সমস্যা মিটেছে।” তাঁর মতে কাজের প্রচার সোশ্যাল মিডিয়ায় ভালোভাবে করা গেলেও একজন অভিনেতা বা অভিনেত্রীর গুরুত্ব বা প্রতিভা কখনোই তাঁর প্রাপ্ত লাইকের সংখ্যার ওপরে নির্ভর করে না।

নিয়মিত অভিনয়, শ্যুটিং, পড়াশোনা- এইসবের পাশাপাশি ঐশীর ব্যক্তিগত জীবনে আগমন ঘটেছে এক বিশেষ মানুষের। ইন্ড্রাস্টিতে কানাঘুষো তেমনটাই শোনা যাচ্ছে। গোপন তথ্য ফাঁস না করলেও এই বিষয়ের সত্যতা স্বীকার করে নিয়েছেন তিনি। ঐশী হাসিমুখে বলেছেন,”একজন আছে আমার জীবনে। সে ইন্ডাস্ট্রিরই। এর বেশি আর কিছুই বলতে পারবো না। বললেই সবাই বুঝে যাবে।”

Related Articles