Thursday, January 20, 2022

রূপে লক্ষ্মী গুণে সরস্বতী, ‘বরণ’ সিরিয়ালের তিথির শিক্ষাগত যোগ্যতা শুনি চোখ কপালে উঠলো নেটিজেনদের

ছোটপর্দার বিভিন্ন ধারাবাহিকেই অনেক সময় অবাস্তব ও ভুলভাল অনেক কিছু দেখানো হয়। এমন কিছু সংলাপ চরিত্রদের মুখে শোনা যায় যা বাস্তবে কখন‌ও সম্ভব নয়। সেইরকম কিছু দৃশ্য সামনে আসলে দর্শকরা স্বাভাবিকভাবেই তার সমালোচনা করে থাকেন। তবে ইদানীং যেন সমালোচনার পরিমাণ বেড়ে গিয়েছে। দর্শকদের মধ্যে একাংশ প্রায় সব কিছুতেই খুঁত ধরতে বা হাসাহাসি করতে অর্থাৎ ট্রোল করতে পছন্দ করে থাকেন।

এবার তেমনি ট্রোলিংয়ের মুখে পড়েছে স্টার জলসার ধারাবাহিক ‘বরণ’। এই ধারাবাহিকে নায়ক-নায়িকা তিথি ও রুদ্রিকের প্রেমের মিষ্টি গল্প দেখানো হচ্ছে। তাদের বিয়ের পর তিথির ইচ্ছে হানিমুনে ‘দীপুদা’ অর্থাৎ দীঘা-পুরী-দার্জিলিং যাওয়ার, অপরদিকে রুদ্রিক মালদ্বীপ বা প্যারিস বা সুইজারল্যান্ড যেতে চায়। এইসবের মাঝেই প্রকাশ হয়েছে ধারাবাহিকের একটি নতুন প্রোমো।

প্রকাশিত নতুন প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে তিথি রুদ্রিকের পরিবারের সদস্যদের সামনে নিজের শিক্ষাগত যোগ্যতা ও দক্ষতা জাহির করছে। তিথির বক্তব্য অনুযায়ী যে বছর সে মাধ্যমিক দেয় সেইবছর সে দ্বিতীয় হয়েছিল। এরপরে উচ্চমাধ্যমিকে সে প্রথম হয়। সম্ভবত সারা রাজ্যের ভিত্তিতেই নিজের স্থান ঘোষণা করছিলো সে‌। উচ্চমাধ্যমিকের পর তিথি নাকি কিছু কোর্স করে, যার মধ্যে একটি কোর্স হলো এমবিএ (MBA), তাতেও সে টপার হয়েছিলো। পরবর্তীতে বিদেশী কোম্পানিতে চাকরি পেলেও সেই চাকরি তিথি করেনি।

এইসব অদ্ভুত কথা শুনে স্বাভাবিকভাবেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে নেট দুনিয়ায়। একসঙ্গে এত বুদ্ধিমত্তার পরিচয় পেয়ে দর্শকরা স্বাভাবিকভাবেই হকচকিয়ে গিয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা প্রোমো ভিডিওর কমেন্ট বক্সে বিভিন্নজন বিভিন্ন রকম মন্তব্য করেছেন। কেউ লিখেছেন,”এতো কিছু করেও দিব্যি স্টার জলসায় অভিনয় করছে, কোনো অহংকার নেই।” কেউ আবার বলেছেন,“এর পেছনে আছে রায় ও মার্টিন পুস্তক গুলির অবদান।” নেটিজেনদের বেশিরভাগই উচ্চমাধ্যমিকের পর এমবিএ করেছে শুনে ভীষণ অবাক হয়েছে, তারা কমেন্টে লিখেছেন, “ভাবা যায়, এইচ‌এস (HS) এর পর নাকি এমবিএ (MBA)!”

⚡ Trending News

আরও পড়ুন