Saturday, January 22, 2022

অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা এক ধাক্কায় ওজন কমালেন ১৫কেজি ! রহস্যের জল্পনা কাটালেন নিজেই

টলিউডে এই মুহূর্তে ঐন্দ্রিলা সেন (Oindrila Sen)-কে নিয়ে যথেষ্ট চর্চা হচ্ছে। কারণ তিনি 71 কেজি ওজন কমিয়ে 56 কেজি-তে নামিয়ে এনেছেন। ঐন্দ্রিলার ছবি শেয়ার করে অঙ্কুশ (Ankush Hazra) তাঁর প্রশংসা করেছিলেন। এবার মুখ খুললেন ঐন্দ্রিলা নিজেই।

ঐন্দ্রিলা জানিয়েছেন, লকডাউনে বাড়িতে বসে তাঁর ওজন বেড়ে গিয়েছিল। করোনা পরিস্থিতিতে তিনি মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত হয়ে গিয়েছিলেন। উৎসাহ ছিল না শরীরচর্চার। ‘ম্যাজিক’-এর সময় ওজন খানিকটা কমলেও কিন্তু তা বলার মতো ছিল না। টলিউডে পায়ের মাটি শক্ত করতে হলে ওজন কমানো জরুরী ছিল। ফলে গত বছরের জুন মাস থেকে ঐন্দ্রিলা শরীরচর্চা শুরু করেন। মিষ্টি ও জাঙ্ক ফুড খাওয়া বন্ধ করে দেন তিনি। ওজন কমানোর জন্য নিজের প্রিয় খাবার ছেড়ে দিতেও কার্পণ্য করেননি ঐন্দ্রিলা।

কিন্তু প্রথম দুই মাস কোনো ওজন কমেনি। কষ্ট হলেও কঠিন শরীরচর্চার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করেছিলেন ঐন্দ্রিলা। বিশেষ ডায়েট বা চৌদ্দ থেকে ষোলো ঘন্টা উপোস করার পক্ষপাতী নন তিনি। তবে ট্রেনারের পরামর্শ অনুযায়ী, সারাদিনে ছয়টি ছোট মিল খেতেন ঐন্দ্রিলা। এর মধ্যে থাকত কুসুম ছাড়া ছয়টি ডিমের সাদা অংশ। সকাল, দুপুর ও রাতে দুটি করে ডিম খেতেন ঐন্দ্রিলা। দুপুর বেলায় খেতেন সব্জির স‍্যুপ, প্রোটিন শেক বা ফল। মাঝে খিদে পেলে খেতেন শশা। নৈশভোজে খেতেন প্রোটিন শেক। কয়েকদিন এই ডায়েট অনুসরণ করার পর দুপুরে অল্প পরিমাণ ভাত খাওয়ার অনুমতি পেয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা।

ব্ল্যাক কফি ও ফ্রুট জুস খাওয়া বারণ ছিল ঐন্দ্রিলার। বেশ কিছুটা ওজন কমিয়ে ফেলার পর তাঁর এই ডায়েট থেকে মুক্তি পেয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা। বাড়িতে মায়ের তৈরি মাছ বা মাংসের ঝোল দিয়ে ভাত খান ঐন্দ্রিলা। কেক, পেস্ট্রি না খেলেও পছন্দ করেন ডার্ক চকোলেট। কফিতে সাধারণ দুধের পরিবর্তে ঐন্দ্রিলা ব্যবহার করেন আমন্ড মিল্ক। চিনির পরিবর্তে খান গুড়। তবে সপ্তাহে একদিন ঝাল ফুচকা খান ঐন্দ্রিলা।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Oindrila Sen (@love_oindrila)

ঐন্দ্রিলা নিজেও ওজন কমিয়ে যথেষ্ট খুশি। তাঁর চেহারায় এসেছে অনেক পরিবর্তন। এর আগে বাড়তি ওজনের জন্য কয়েকটি ফিল্ম ছেড়ে দিয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা। তিনি মনে করেন, এখনও টলিউডে ছিপছিপে নায়িকার চল রয়েছে। প্রযোজকরা বলেন ওজন কমাতে। ঐন্দ্রিলা তাঁদের দোষ দেন না। কারণ তিনি মনে করেন, টলিউডে এখনও কোনো অভিনেত্রী বিদ্যা বালন (Vidya Balan) ও ভূমি পেডনেকর (Bhumi Pednekar)-এর মতো স্টারডম তৈরি করতে পারেননি।

⚡ Trending News

আরও পড়ুন