×
বিনোদন

এতো ফাটা দাগ কিসের?’ খোলা পিঠের ছবি দিতেই কটাক্ষের সম্মুখীন দেবলীনা! জবাব অভিনেত্রীর

Advertisements
Advertisements

সেলিব্রেটি আর ট্রোলড এই সম্পর্ক বেশ পারিপার্শ্বিক হয়ে উঠেছে। হাতে একটা সেলফোন পেয়েই সোশ্যাল মিডিয়াতে বহু তারকাদের ট্রোল্ড করে থাকেন নেটিজেন। তবে সব সময় যে সেলিব্রেটিরা মুখ বন্ধ রাখেন তা কিন্তু নয়। মাঝে মাঝে সেলিব্রেটিরা শক্ত হাতে জবাব দিতে জানে। যেমন টলিউড অভিনেত্রী দেবলীনা কুমার। দেবলীনা যেমন খুব ভালো নৃত্যশীল্পী তেমনই খুব ভালো স্পষ্ট বক্তা। সোজা কথা সোজা ভাবে বলতে পছন্দ করেন এই অভিনেত্রী।

Advertisements

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Devlina Kumar (@devlinakumar)

দেবলীনা নিজের ইন্সটাগ্রাম হ্যান্ডেলে বেশ ভালো ভাবে সক্রিয়। প্রায়শই নানান ফটোশুট আর নাচের ভিডিয়োর সাথে অনুগামীদের ফিট থাকার নানান মন্ত্র বলে থাকেন। কখনও স্বামী অভিনেতা গৌরব চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কাটানো নানান রোম্যান্টিক মুহূর্তের সাথে কখনো খুনসটি। আবার নিজের কাজের মুহূর্তের ছবি অনুগামীদের সাথে ভাগ করে নেন মহানায়কের পরিবারের নাতবউ। মাঝে মাঝে কিছু ছবির জন্য ট্রোলড হন আর সেগুলোর কড়া জবাব ও দেন।

বর্তমানে অভিনেত্রী দেবলীনা ড্যান্স বাংলা ড্যান্সে এক গুরুত্বপূর্ণ পদে আছেন।। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে ‘ডান্স বাংলা ডান্স’-এর সেট থেকে একটি ছবি শেয়ার করেন দেবলীনা। শেয়ার করা এই ছবিতে হলুদ রঙা শিফন শাড়িতে পিঠ খোলা ব্লাউজে পাওয়া গেল ড্যান্স বাংলা ডান্সেত গুরুকে। শাড়ির সাথে মানানসই চুল টেনে খোপা করে বাঁধা, কাজল কালো চোখ, কানে ঝুমকো আর দেবলীনার আবেদনময়ী পোজ আর মুখে হাসি। এক কথায় অনবদ্য সেই ছবি।

কিন্তু এই ছবি পোস্ট করতেই ট্রোলড হলেন অভিনেত্রী। কারণ এই ছবিতে নায়িকার পিঠের স্ট্রেচ মার্কস স্পষ্টত। তাই নিয়ে কটাক্ষ করেন। যদিও এই প্রথমবার নিজের শরীরের দাগ নিয়ে কটূক্তি শুনলেন না দেবলীনা। তবে পুরুষ নয় এবার এক মহিলা অনুগামীর কাছে এক মহিলাই দেবলীনাকে প্রশ্ন করেছেন, ‘এতো ফাটা দাগ কেন পিঠে?’ অভিনেত্রী এই কটাক্ষ দেখে চুপ থাকার পাত্রী নয়, রসিকতা করে তিনি পালটা লেখেন- ‘মা মেরে ছিল বাবু’।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Devlina Kumar (@devlinakumar)

দেবলীনার পিঠের স্ট্রেচ মার্কস নিয়ে এই প্রথম প্রশ্নের সম্মুখীন হননি। তিনি এর আগেও বহুবার ট্রোলড হয়েছেন। আসলে দেবলীনা আগে একটু স্বাস্থ্যবতী ছিলেন। এরপর ওয়ার্কআউট করে প্রচুর পরিমাণে ওজন ঝরিয়েছেন। আচমকা ওজন বাড়া-কমার জেরে অনেক সময়ই শরীরে স্ট্রেচ মার্কস দেখা যায়। এর আগে স্বামী গৌরব চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে একবার ছবি পোস্ট করেও একই ধরণেই প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছিলেন দেবলীনা তখনই এর উত্তর দেন। তাও বারংবার একই প্রশ্ন করে তাঁকে বিব্রত করেন অনেকেই। তবে নিন্দুকেরা যে যাই বলুক, দেবলীনার এই ছবিতে কাবু হয়েছেন বহু পুরুষ হৃদয়ই। একদিকে অনুরাগীরা তাঁর রূপের প্রশংসা করেছেন। একজন লিখেছেন, ‘অনেক সাহস পাই তোমাকে দেখে’। তাঁর জবাবে দেবলীনা লেখেন- ‘আর আমি সাহস পাই তোমাদের দেখে’। এরপর অনুগামীরা ভালোবাসা জানিয়েছেন। নিমেষে ভাইরাল হয় এই পোস্ট।

Advertisements